বাংলার জন্য ক্লিক করুন
   বৃহস্পতিবার, ১ অক্টোবর 2020 | ,২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৭
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   জাতীয় -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
মায়ের কবরে চিরনিদ্রায় শায়িত সাহারা খাতুন

রাজধানীর বনানী কবরস্থানে মায়ের কবরে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন। শনিবার সকাল ১১টায় বনানী কবরস্থান মসজিদে জানাজার পর তাকে দাফন করা হয়।

বনানীতে জানাজা শেষে জাতীয় ও দলীয় পতাকায় মোড়া কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে। জাতীয় সংসদের স্পিকার, ডেপুটি স্পিকার, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়রের পক্ষ থেকেও শ্রদ্ধা জানানো হয়।

সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুনের কফিনে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বর্তমান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন।

আওয়ামী লীগ, ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ আওয়ামী লীগ, আওয়ামী লীগের সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতীম সংগঠন ছাত্রলীগ, যুবলীগ, কৃষকলীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুব মহিলা লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, শ্রমিক লীগসহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে শেষ শ্রদ্ধা জানানো হয় সাহারা খাতুনের কফিনে।

শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, সাহারা খাতুনকে হারিয়ে আওয়ামী লীগ এবং দেশের অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে, যা পূরণ হবার নয়। বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন ছিল সাহারা আপার। দেশের মানুষ, আওয়ামী লীগ হারিয়েছে দেশপ্রেমিক, সততার উজ্জল দৃষ্টান্ত। আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হারিয়েছেন বিশ্বস্ত হাতিয়ার।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, সত্তরের গণ-আন্দোলন থেকে রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন শেখ হাসিনার বিশ্বস্ত এই সহযোদ্ধা। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ রেখে নিরবিচ্ছিন্নভাবে কাজ করে গেছেন। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের আইনজীবীদের ঐক্যবদ্ধ করে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ। বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলাসহ বহু আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মামলা দক্ষতার সঙ্গে পরিচালনা করেছেন। শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রতি তিনি ছিলেন অবিচল।

মায়ের কবরে চিরনিদ্রায় শায়িত সাহারা খাতুন
                                  

রাজধানীর বনানী কবরস্থানে মায়ের কবরে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুন। শনিবার সকাল ১১টায় বনানী কবরস্থান মসজিদে জানাজার পর তাকে দাফন করা হয়।

বনানীতে জানাজা শেষে জাতীয় ও দলীয় পতাকায় মোড়া কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে। জাতীয় সংসদের স্পিকার, ডেপুটি স্পিকার, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়রের পক্ষ থেকেও শ্রদ্ধা জানানো হয়।

সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাহারা খাতুনের কফিনে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বর্তমান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন।

আওয়ামী লীগ, ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ আওয়ামী লীগ, আওয়ামী লীগের সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতীম সংগঠন ছাত্রলীগ, যুবলীগ, কৃষকলীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুব মহিলা লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, শ্রমিক লীগসহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে শেষ শ্রদ্ধা জানানো হয় সাহারা খাতুনের কফিনে।

শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, সাহারা খাতুনকে হারিয়ে আওয়ামী লীগ এবং দেশের অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে, যা পূরণ হবার নয়। বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবন ছিল সাহারা আপার। দেশের মানুষ, আওয়ামী লীগ হারিয়েছে দেশপ্রেমিক, সততার উজ্জল দৃষ্টান্ত। আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হারিয়েছেন বিশ্বস্ত হাতিয়ার।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, সত্তরের গণ-আন্দোলন থেকে রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন শেখ হাসিনার বিশ্বস্ত এই সহযোদ্ধা। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ রেখে নিরবিচ্ছিন্নভাবে কাজ করে গেছেন। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের আইনজীবীদের ঐক্যবদ্ধ করে প্রতিষ্ঠা করেছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ। বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলাসহ বহু আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মামলা দক্ষতার সঙ্গে পরিচালনা করেছেন। শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রতি তিনি ছিলেন অবিচল।

২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩০, শনাক্ত ২৬৮৬
                                  

করোনাভাইরাসে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এসময় রোগী শনাক্ত হয়েছে ২৬৮৬ জন। শনিবার করোনা সংক্রান্ত নিয়মিত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিনে এ তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (মহাপরিচালকের দায়িত্বপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

 

বুলেটিনে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে সবাইকে স্বাস্থ্য অধিদফতর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শ-নির্দেশনা মেনে চলার অনুরোধ জানানো হয়।

প্রসঙ্গত, চীনের উহান থেকে বিস্তার শুরু করে গত চার মাসে বিশ্বের ২১৫টিরও বেশি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। চীনে করোনার প্রভাব কমলেও বিশ্বের অন্য কয়েকটি দেশে মহামারি রূপ নিয়েছে। দেশে করোনা সংক্রমিত প্রথম রোগী শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ। তার ১০ দিন পর ১৮ মার্চ প্রাণঘাতী করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

করোনায় মূলত শ্বাসতন্ত্রে সংক্রমণ ঘটায়। এর লক্ষণ শুরু হয় জ্বর দিয়ে, সঙ্গে থাকতে পারে সর্দি, শুকনো কাশি, মাথাব্যথা, গলাব্যথা ও শরীর ব্যথা। সপ্তাহখানেকের মধ্যে দেখা দিতে পারে শ্বাসকষ্ট। উপসর্গগুলো হয় অনেকটা নিউমোনিয়ার মত। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ভালো হলে এ রোগ কিছুদিন পর এমনিতেই সেরে যেতে পারে। তবে ডায়াবেটিস, কিডনি, হৃদযন্ত্র বা ফুসফুসের পুরোনো রোগীদের ক্ষেত্রে ডেকে আনতে পারে মৃত্যু।

চীনে ভ্যাকসিন আবিষ্কার হলে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বাংলাদেশ আগে পাবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
                                  
চীনে করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক (ভ্যাকসিন) আবিষ্কার করা হলে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে তা বাংলাদেশে আগে পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক।
 
সোমবার (২২ জুন) সকালে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান তিনি।
 
চীন থেকে আসা ১০ প্রতিনিধিকে বিদায় জানাতে বিমানবন্দরে উপস্থিত হন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। এ সময় ভিআইপি লাউঞ্জে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, চীন করোনা ভ্যাক্সিন নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। তাদের কাজে অগ্রগতিও অনেক। এই ভ্যাক্সিন আবিষ্কৃত হলে সবার আগে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বাংলাদেশকে পাঠাবে বলে চীন সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। চীনে করোনা ছড়িয়ে পড়ার সময়ে বাংলাদেশ যেভাবে পাশে ছিল চীন সরকার সেই উদারতার কথা মনে রেখে বাংলাদেশের জন্য সবার আগে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দেবে।
 
প্রতিনিধি দলের বাংলাদেশ সফর নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, কোভিড প্রতিরোধে বাংলাদেশের কাজে চীনা দল সন্তুষ্ট হয়েছে, তবে কভিড মোকাবিলায় আরও কিছু জায়গায় উন্নতি করার সুযোগ রয়েছে বলেও প্রতিনিধি দল সরকারকে জানিয়েছেন। আমরাও সামনের দিনগুলোতে চিহ্নিত জায়গাগুলো নিয়ে আরও কাজ করবো।
 
ভ্যাকসিন আবিষ্কার হলে তা সবার আগে বাংলাদেশ পাবে বলে নিশ্চিত করে প্রেস ব্রিফিংয়ে বক্তব্য রাখেন চীন রাষ্ট্রদূত ঝ্যাং জুয়ো। আরও বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ। স্বাস্থ্যখাতের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।
 
সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানান, করোনায় আক্রান্তের হার এভাবে বাড়তে থাকলে আরও দুই হাজার নতুন চিকিৎসক নিয়োগ দেওয়া হবে। পাশাপাশি মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট নিয়োগের কাজও বর্তমানে চলমান রয়েছে। করোনা পরিস্থিতি আগামীতে যেরকম হবে সরকার সেভাবেই বুঝেশুনে পদক্ষেপ নেবে।
 
করোনা পরীক্ষার কিট প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, চাহিদা অনুযায়ী কিট পাওয়া যাচ্ছে না।  কারণ বর্তমান বিশ্বের সব দেশেই কিটের চাহিদা রয়েছে। তবে যা মজুদ আছে তাতে ঘাটতি হওয়ার কথা না। কোনও কারণে সংকট তৈরি হলেও তা খুব দ্রুতই মেটানোর ব্যবস্থা করবে সরকার। কাজেই কিট নিয়ে এই মুহূর্তে উদ্বেগের কোনও কারণ নেই।
 
করোনায় যে হারে প্রতিদিন রোগী বাড়ছে তাতে মানুষ অধিক সচেতন না হলে সব হাসপাতাল করোনা রোগীতে পরিপূর্ণ হয়ে যাবে বলে জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, একারণে করোনা মোকাবিলায় দেশের মানুষকে আরও বেশি স্বাস্থ্য সচেতন হতে হবে। পাশাপাশি কোরোনা মোবিবেলায় স্বাস্থ্যখাতে বাজেট আরও বাড়ানো প্রয়োজন।
করোনায় আরও ৩৮ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩৪৮০
                                  
করোনাভাইরাসে দেশে নুতন করে আরও ৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এসময় রোগী শনাক্ত হয়েছে ৩৪৮০ জন। সোমবার করোনা সংক্রান্ত নিয়মিত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিনে এ তথ্য জানান স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (মহাপরিচালকের দায়িত্বপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।
 
বরাবরের মতোই বুলেটিনে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে সবাইকে স্বাস্থ্য অধিদফতর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শ-নির্দেশনা মেনে চলার অনুরোধ জানানো হয়।
 
দেশে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত প্রথম রোগী শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ। তার ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।
 
প্রসঙ্গত, চীনের উহান থেকে বিস্তার শুরু করে গত চার মাসে বিশ্বের ২১৫টিরও বেশি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। চীনে করোনার প্রভাব কমলেও বিশ্বের অন্য কয়েকটি দেশে মহামারি রূপ নিয়েছে।
 
করোনাভাইরাস মূলত শ্বাসতন্ত্রে সংক্রমণ ঘটায়। এর লক্ষণ শুরু হয় জ্বর দিয়ে, সঙ্গে থাকতে পারে সর্দি, শুকনো কাশি, মাথাব্যথা, গলাব্যথা ও শরীর ব্যথা। সপ্তাহখানেকের মধ্যে দেখা দিতে পারে শ্বাসকষ্ট। উপসর্গগুলো হয় অনেকটা নিউমোনিয়ার মত। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ভালো হলে এ রোগ কিছুদিন পর এমনিতেই সেরে যেতে পারে। তবে ডায়াবেটিস, কিডনি, হৃদযন্ত্র বা ফুসফুসের পুরোনো রোগীদের ক্ষেত্রে ডেকে আনতে পারে মৃত্যু।
একজন অসাম্প্রদায়িক চেতনার মানুষকে হারালাম : প্রধানমন্ত্রী
                                  

বরেণ্য সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, একুশে পদকপ্রাপ্ত বিশিষ্ট সাংবাদিক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা কামাল লোহানীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার এক শোকবার্তায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, কামাল লোহানী বাঙালির ভাষা আন্দোলন, স্বাধিকার ও স্বাধীনতা সংগ্রামে অগ্রণী ভূমিকা রেখেছেন। একজন আদর্শবান ও গুণী মানুষ হিসেবে মহান মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ ও অসাম্প্রদায়িক চেতনা প্রতিষ্ঠা এবং দেশের সংস্কৃতি বিকাশের আন্দোলনে পুরোধা ব্যক্তিত্ব ছিলেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, আমরা একজন প্রগতিশীল ব্যক্তিত্ব এবং অসাম্প্রদায়িক চেতনার অসাধারণ যোদ্ধাকে হারালাম। প্রধানমন্ত্রী মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও সাংবাদিক কামাল লোহানী মারা গেছেন। রাজধানীর মহাখালীর শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার সকালে ১০টায় তার মৃত্যু হয়।

একদিনে মৃত্যু ৩৭, আক্রান্ত ৩২৪০
                                  

বিশ্ব মহামারি করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া নতুন করে ৩ হাজার ২৪০ জনের দেহে নভেল করোনাভাইরাস বা কভিড-১৯ রোগের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। শনিবার করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এ তথ্য জানান।

বুলেটিনে ডা. নাসিমা বরাবরের মতো করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষিত থাকতে সবাইকে সাবান দিয়ে হাত ধোয়া, মুখে মাস্ক পরা এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান।

দেশে করোনায় একদিনে মৃত্যু ৪৫, শনাক্ত ৩২৪৩
                                  

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৪৫ জন মারা গেছেন। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মারা গেলেন এক হাজার ৩৮৮ জন। একই সময়ে করোনা শনাক্ত হয়েছে আরও তিন হাজার ২৪৩ জনের। ফলে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা এক লাখ পাঁচ হাজার ৫৩৫ জন।

শুক্রবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাবিষয়ক নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা অনলাইনে বুলেটিন পড়েন।

তিনি জানান, করোনা শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৬ হাজার ৩২৭টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ১৫ হাজার ৪৫টি। এ নিয়ে দেশে নমুনা পরীক্ষা করা হলো পাঁচ লাখ ৮২ হাজার ৫৪৮টি। নতুন নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছে আরও তিন হাজার ২৪৩ জনের। ফলে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা এক লাখ পাঁচহাজার ৫৩৫ জনে। আক্রান্তদের মধ্যে মারা গেছেন আরও ৪৫ জন। এ নিয়ে মৃত্যু হলো এক হাজার ৩৮৮ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও দুই হাজার ৭৮১ জন। সব মিলিয়ে সুস্থ রোগী এখন ৪২ হাজার ৯৪৫ জন।

বুলেটিনে বরাবরের মতো করোনা থেকে সুরক্ষিত থাকতে সবাইকে সাবান দিয়ে হাত ধোয়া, মুখে মাস্ক পরা এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানানো হয়।

করোনায় ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড মৃত্যু ৫৩, সর্বোচ্চ শনাক্ত ৩৮৬২ জন
                                  

দেশে করোনাভাইরাসের প্রকোপ শুরুর পর এই প্রথম একদিনে অর্ধশতাধিক মানুষের মৃত্যুর খবর দিলো স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। একদিনে ৫৩ জনের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ১ হাজার ২৬২ জন।

মঙ্গলবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ৩ হাজার ৮৬২ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়ায় দেশে এ পর্যন্ত শনাক্ত রোগী ৯৪ হাজার ৪৮১ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২ হাজার ২৩৭ জন রোগী সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে সুস্থ রোগী ৩৬ হাজার ২৬৪ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত বুলেটিনে যুক্ত হয়ে অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা মঙ্গলবার দেশে করোনা পরিস্থিতির এই সবশেষ তথ্য তুলে ধরেন।

বরাবরের মতো করোনা থেকে সুরক্ষিত থাকতে সবাইকে সাবান দিয়ে হাত ধোয়া, মুখে মাস্ক পরা এবং অন্যান্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান তিনি। ডা. নাসিমা বলেন, নিজের এবং পরিবারের সদস্যদের সুরক্ষা নিজেদেরই হাতে।

আরও ৩৪৭১ করোনা রোগী শনাক্ত, নতুন মৃত্যু ৪৬
                                  

 

 দেশে গত একদিনে অর্থাৎ শেষ ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন আরও তিন হাজার ৪৭১ জন। এ সময়ে মৃত্যু হয়েছে আরও ৪৬ জনের। সুস্থ হয়েছেন আরও ৫০২ জন। এ পর্যন্ত একদিন ব্যবধানে যে সংখ্যক রোগী মারা গেছেন এবং শনাক্ত হয়েছেন, তার মধ্যে এ দুটোই সর্বোচ্চ; রেকর্ড।

শুক্রবার (১২ জুন) দুপুর আড়াইটার দিকে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিনে এ তথ্য দেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (মহাপরিচালকের দায়িত্বপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

তিনি বলেন, এ নিয়ে মোট মৃত্যু সংখ্যা দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৯৫ জনে। আর মোট শনাক্ত দাঁড়িয়েছে ৮১ হাজার ৫২৩ জনে। একইসঙ্গে মোট সুস্থ হয়েছেন ১৭ হাজার ২৪৯ জন।

ডা. নাসিমা বলেন, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৯টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১৬ হাজার ৯৫০টি। নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৫ হাজার ৯৯০টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে চার লাখ ৭৩ হাজার ৩২২টি।

মৃত্যু হওয়া ৪৬ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১৯ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ১১ জন, সিলেট বিভাগে তিনজন, বরিশালে বিভাগে তিনজন, রংপুর বিভাগে পাঁচজন, রাজশাহী বিভাগে দুইজন, ময়মনসিংহ বিভাগে দুইজন, খুলনা বিভাগে একজন। ৪৬ জনের মধ্যে পুরুষ ৩৭ জন। নারী নয়জন।

তাদের বয়স বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, ১০০ বছরের ঊর্ধ্বে একজন, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে একজন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে সাতজন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১৫ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১২ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে তিনজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ছয়জন, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে একজন। এরমধ্যে হাসপাতালে মারা গেছেন ৩২ জন, বাড়িতে ১৪ জন।

তিনি আরও বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৪৩৬ জন। মোট আইসোলেশনে আছেন নয় হাজার ১২ জন।

করোনা ভাইরাস বিস্তার রোধে সবাইকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিউএইচও) ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের লকডাউন পরবর্তী সংশ্লিষ্ট দিকনির্দেশনা বিশেষ করে মাস্ক ব্যবহার এবং শারীরিক দূরত্ব মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

ভাইয়ের শেষ বিদায়ে কান্নায় ভেঙে পড়লেন ফজলে করিম এম়পি
                                  

ভাইয়ের শেষ বিদায়ে কান্নায় ভেঙে পড়লেন রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী।

নিজের কাঁধে ভাইয়ের কফিনের খাটিয়া তুলে নেন তিনি। অপর পাশে কাঁধে নেন তার ছেলে ফারাজ করিম চৌধুরী। খাটিয়া কাঁধে নেন ভাই ফজলে শহীদও।  

শুক্রবার জুমার নামাজের পর গহিরা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদের সাবেক বিরোধী দলীয় নেতা একেএম ফজলুল কবির চৌধুরীর মেজ ছেলে ফজলে রাব্বি চৌধুরীর (মানিক) জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর মরহুমের নিজ বাড়ি বক্স আলী চৌধুরী জামে মসজিদের পাশে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।   

এর আগে চট্টগ্রামের পাথরঘাটা থেকে ভাইয়ের মরদেহবাহী গাড়ির সামনের সিটে বসে গ্রামের বাড়ি রাউজান নিয়ে আসেন ফজলে করিম চৌধুরী।     

বৃহস্পতিবার (৪ জুন) হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ফজলে রাব্বি চৌধুরীর (মানিক) ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহি...রাজিউন)।

করোনাকালে জানাজায় যাতে বেশি লোকসমাগম না হয় সে জন্য ফারাজ করিম চৌধুরী নিজের ফেসবুকে একাধিকবার স্ট্যাটাস দেন। যাতে তিনি বলেছিলেন, যারা প্রকৃতপক্ষে আমার চাচাকে ভালোবাসেন তারা একজন মুসলমান হিসেবে আমার চাচার জন্য দোয়া করেন। সবার প্রতি বিনীতভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি, জানাজায় এসে কেউ রাউজানবাসীকে করোনার ঝুঁকির মুখে ফেলবেন না।

ডা. জাফরুল্লাহর শারীরিক অবস্থা ভালো না
                                  

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে। এজন্য প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে সবার কাছে দোয়া চাওয়া হয়েছে।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ৭টায় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ফেসবুক পেজে বলা হয়েছে, ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর জন্য সবাই দোয়া করবেন। তার শরীর ভালো না। রাতে শ্বাসকষ্ট ছিল। আপনাদের দোয়া খুব প্রয়োজন।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বর্তমানে তার স্থা‌পিত প্র‌তিষ্ঠান গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে চি‌কিৎসা নিচ্ছেন।

করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর প্লাজমা থেরাপি নেন ডা. জাফরুল্লাহ। এতে উপকার পাওয়ায় গত ২৮ মে রাতে দ্বিতীয়বারের মতো প্লাজমা নেন। এ ছাড়া গত ৩০ মে রাতে তৃতীয়বারের মতো ডায়ালাইসিস করান। সেই সঙ্গে ব্রেথিং (শ্বাস-প্রশ্বাস) থেরাপিও নেন তিনি।

গত রোববার ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী জানিয়েছিলেন, তার স্ত্রী ও ছেলেও করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এ দিন তিনি আরও জানান, তার শ্বাসকষ্ট হচ্ছে। তিনি অক্সিজেন নিচ্ছেন।

মানুষকে রক্ষার চেষ্টা করছি প্রাণপণে : প্রধানমন্ত্রী ‘
                                  
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘করোনাভাইরাস মহামারির সময়ে দেশের মানুষকে সুরক্ষিত রাখতে আমরা প্রাণপণ চেষ্টা করে যাচ্ছি। বর্তমান সংকটে সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান এগিয়ে এসেছে। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় করোনা মোকাবিলা করে দেশ এগিয়ে যাবে।’ বৃহস্পতিবার (৪ জুন) ত্রাণ তহবিলে অনুদান গ্রহণকালে তিনি এমন আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
 
প্রধানমন্ত্রীর কথায়, ‘সরকারের পক্ষ থেকে আমরা করেছি, আমাদের দল আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে করেছি। অনেক বিত্তশালী মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে এই আন্তরিকতাটুকু আছে বলে কর্মহীন, অসহায় মানুষেরা এখনও খেতে পারছে বা চলতে পারছে।’
 
সরকার সর্বস্তরের মানুষকে সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা ব্যাপকভাবে ত্রাণ দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছি এবং আমরা দিয়ে যাচ্ছি। কোভিড-১৯ রোগীদের বিনামূল্যে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। করোনার টেস্ট ও চিকিৎসা দুটোই সরকারি উদ্যোগে বিনা পয়সায় হচ্ছে।’
 
সরকার প্রধানের ভাষ্য, ‘প্রত্যেক শ্রেণিপেশার মানুষ সবার কাছে যেন আমরা কিছু না কিছু সহযোগিতা পৌঁছে দিতে পারি, সেই চেষ্টা করে যাচ্ছি। তারা যেন কষ্ট না পায়, অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড যাতে চলে, সেদিকে লক্ষ রেখে শিল্প থেকে শুরু করে সর্বস্তরের সবাই যেন কার্যক্রম চালাতে পারে সেই লক্ষ্যে বিশেষ প্রণোদনা দেওয়া হচ্ছে, যা জিডিপির প্রায় ৩ দশমিক ৭ ভাগ।’
 
তিন-চার মাস ধরে অর্থনীতি পুরোপুরি স্থবির জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যেহেতু অর্থনীতি স্থবির অবস্থায় রয়েছে, সেজন্য আমরা কিছু কিছু ক্ষেত্র এখন উন্মুক্ত করছি। কারণ মানুষকে তো আমাদের বাঁচাতে হবে। আমরা মানুষের কল্যাণের কথা ভেবে কাজ করে যাচ্ছি। আমরা সবসময় জনগণের কল্যাণেই কাজ করি। জনগণের স্বাস্থ্য সুরক্ষিত করা, অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড সচল করা, তাদের সামাজিক নিরাপত্তা দেওয়াসহ সব বিষয় নিয়ে কাজ চলছে।’
 
দেশবাসীর উদ্দেশে বঙ্গবন্ধু কন্যার আহ্বান, ‘আল্লাহর কাছে দোয়া করেন, করোনাভাইরাসের হাত থেকে যেন আমরা মুক্তি পাই।’
 
যারা অনুদান দিয়েছেন তাদের সবাইকে ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী। করোনায় যারা মারা গেছেন তাদের আত্মার শান্তি ও মাগফেরাত কামনা করার পাশাপাশি শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান তিনি।
 
বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ত্রাণ তহবিলে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অনুদান ও চিকিৎসা সামগ্রী গ্রহণ করেন মুখ্যসচিব ড. আহমেদ কায়কাউস। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে যোগ দেন তিনি।
দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩০, আক্রান্ত ২৮২৮
                                  

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩০ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে মহামারি করোনাভাইরাস। ফলে ভাইরাসটিতে মোট মারা গেলেন ৮১১ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৮২৮ জন। এতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৬০ হাজার ৩৯১।

শুক্রবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাবিষয়ক নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা অনলাইনে বুলেটিন উপস্থাপন করেন।

তিনি ৫০টি ল্যাবরেটরিতে নমুনা পরীক্ষার তথ্য তুলে ধরে জানান, করোনা শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৪ হাজার ৬৪৫টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ১৪ হাজার ৮৮টি নমুনা। এ নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো তিন লাখ ৭২ হাজার ৩৬৫টি। নতুন নমুনা পরীক্ষায় করোনা আক্রান্ত হয়েছেন আরও দুই হাজার ৮২৮ জন। ফলে দেশে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৬০ হাজার ৩৯১ জন। আক্রান্তদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে আরও ৩০ জনের। ফলে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৮১১ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও ৬৪৩ জন। এ নিয়ে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগী ১২ হাজার ৮০৪ জন।

ডা. নাসিমা বরাবরের মতোই করোনা থেকে সুরক্ষিত থাকতে সবাইকে সাবান দিয়ে হাত ধোয়া, মুখে মাস্ক পরাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার অনুরোধ জানান।

দেশে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের নতুন রেকর্ড, মৃত্যু ৩৭
                                  

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৭ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে করোনাভাইরাস। ফলে ভাইরাসটিতে ৭০৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৯১১ জন। যা একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড। এতে মোট আক্রান্ত ৫২ হাজার ৪৪৫ জন।

মঙ্গলবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাবিষয়ক নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা অনলাইনে বুলেটিন উপস্থাপন করেন।

তিনি ৫২টি ল্যাবরেটরিতে নমুনা পরীক্ষার তথ্য তুলে ধরে জানান, করোনা শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৪ হাজার ৯০৫টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ১২ হাজার ৭০৪টি। এ নিয়ে দেশে নমুনা পরীক্ষা করা হলো তিন লাখ ৩৩ হাজার ৭৩টি। নতুন নমুনা পরীক্ষায় করোনার উপস্থিতি পাওয়া গেছে আরও দুই হাজার ৯১১ জনের দেহে। ফলে দেশে আক্রান্ত হয়েছেন ৫২ হাজার ৪৪৫ জন। আক্রান্তদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে আরও ৩৭ জনের। ফলে মৃতের সংখ্যা ৭০৯ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও ৫২৩ জন। এ নিয়ে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগী ১১ হাজার ১২০ জন।

ডা. নাসিমা বরাবরের মতোই করোনা থেকে সুরক্ষিত থাকতে সবাইকে সাবান দিয়ে হাত ধোয়া, মুখে মাস্ক পরা, বাইরে বেরোলে হ্যান্ড গ্লোভস পরাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার অনুরোধ জানান।

দেশে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর রেকর্ড: নতুন মৃত ৪০, আক্রান্ত ২৫৪৫
                                  

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৪০ জনের প্রাণ কেড়ে নিয়েছে করোনাভাইরাস। এটি এখন পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। ফলে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৬৫০ জনে।

একই সময়ে আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৫৪৫ জন। এটিও একদিনে সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড। ফলে মোট আক্রান্ত ৪৭ হাজার ১৫৩ জন।

রোববার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাবিষয়ক হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানান অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

তিনি নতুন যুক্ত দুটিসহ ৫২টি আরটি-পিসিআর ল্যাবরেটরিতে নমুনা পরীক্ষার তথ্য তুলে ধরে জানান, করোনা শনাক্তে গত ২৪ ঘণ্টায় ১২ হাজার ২২৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এ নিয়ে দেশে নমুনা পরীক্ষা করা হলো তিন লাখ আট হাজার ৯৩০টি। নতুন নমুনা পরীক্ষায় করোনার উপস্থিতি পাওয়া গেছে আরও দুই হাজার ৫৪৫ জনের দেহে। এটি এ যাবতকালের সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড। ফলে দেশে মোট আক্রান্ত ৪৭ হাজার ১৫৩ জন। আক্রান্তদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে আরও ৪০ জনের। এটি এখন পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ প্রাণহানির রেকর্ড। ফলে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৬৫০ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও ৪০৬ জন। এ নিয়ে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগী নয় হাজার ৭৮১ জন।

ডা. নাসিমা বরাবরের মতোই করোনা থেকে সুরক্ষিত থাকতে সবাইকে স্বাস্থ্য অধিদফতর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা মেনে চলার অনুরোধ জানান।

করোনা রোধে আরও স্থানীয় জনপ্রতিনিধির সম্পৃক্তির আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর
                                  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে আরও বেশি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদেরকে এ কাজে সম্পৃক্ত করার জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি করোনা প্রতিরোধে গঠিত জাতীয় কারিগরি উপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে এ আহ্বান জানান।

গণভবনে শনিবার বেলা ১১টা থেকে ২টা পর্যন্ত এই বৈঠক হয়। বৈঠকের পরে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম বৈঠকের বিষয়ে জানান, বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের বিস্তার রোধ করার পাশাপাশি করোনা আক্রান্তদের মেডিকেল সেবা প্রদানের জন্য বিভিন্ন নির্দেশনা দেন।

দেশে করোনার বিস্তার কমিয়ে আনা এবং করোনায় আক্রান্তদের সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে গৃহীত পদক্ষেপসমূহও বৈঠকে পর্যালোচনা করা হয়, বলেন তিনি।

কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোহাম্মাদ শহীদুল্লাহ, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস, পিএমও সচিব তোফাজ্জল হোসেন মিয়া, প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক অধ্যাপক এবিএম আবদুল্লাহ, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব আসাদুল ইসলাম এবং কমিটির অন্য সদস্যরা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

দেশে করোনার বিস্তার রোধে সরকার গত ১৯ এপ্রিল ১৭ সদস্যবিশিষ্ট জাতীয় কারিগরি উপদেষ্টা কমিটি গঠন করে।

বাংলাদেশ মেডিকেল এবং ডেন্টাল কাউন্সিলের সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মাদ শহীদুল্লাহকে কমিটির সভাপতি এবং আইইডিসিআরের পরিচালক অধ্যাপক মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরাকে মহাসচিব করা হয়।


   Page 1 of 79
     জাতীয়
মায়ের কবরে চিরনিদ্রায় শায়িত সাহারা খাতুন
.............................................................................................
২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩০, শনাক্ত ২৬৮৬
.............................................................................................
চীনে ভ্যাকসিন আবিষ্কার হলে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বাংলাদেশ আগে পাবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
.............................................................................................
করোনায় আরও ৩৮ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩৪৮০
.............................................................................................
একজন অসাম্প্রদায়িক চেতনার মানুষকে হারালাম : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
একদিনে মৃত্যু ৩৭, আক্রান্ত ৩২৪০
.............................................................................................
দেশে করোনায় একদিনে মৃত্যু ৪৫, শনাক্ত ৩২৪৩
.............................................................................................
করোনায় ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড মৃত্যু ৫৩, সর্বোচ্চ শনাক্ত ৩৮৬২ জন
.............................................................................................
আরও ৩৪৭১ করোনা রোগী শনাক্ত, নতুন মৃত্যু ৪৬
.............................................................................................
ভাইয়ের শেষ বিদায়ে কান্নায় ভেঙে পড়লেন ফজলে করিম এম়পি
.............................................................................................
ডা. জাফরুল্লাহর শারীরিক অবস্থা ভালো না
.............................................................................................
মানুষকে রক্ষার চেষ্টা করছি প্রাণপণে : প্রধানমন্ত্রী ‘
.............................................................................................
দেশে ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩০, আক্রান্ত ২৮২৮
.............................................................................................
দেশে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের নতুন রেকর্ড, মৃত্যু ৩৭
.............................................................................................
দেশে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর রেকর্ড: নতুন মৃত ৪০, আক্রান্ত ২৫৪৫
.............................................................................................
করোনা রোধে আরও স্থানীয় জনপ্রতিনিধির সম্পৃক্তির আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর
.............................................................................................
দেশে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ১৭৬৪, মৃত্যু ২৮
.............................................................................................
একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্ত ২৫২৩, মৃত্যু ২৩
.............................................................................................
দেশে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ২ হাজার ছাড়ালো, মৃত্যু ১৫
.............................................................................................
আরও ২২ করোনা রোগীর মৃত্যু, আক্রান্ত ১৫৪১
.............................................................................................
ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বীর স্ত্রী মারা গেছেন
.............................................................................................
করোনায় আরও ২১ মৃত্যু, আক্রান্ত ১১৬৬
.............................................................................................
করোনা থেকে মুক্তি চেয়ে বিশেষ মোনাজাত
.............................................................................................
মুক্তিযোদ্ধাদের প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা ও ঈদ উপহার
.............................................................................................
আরও ১৯৭৫ করোনা রোগী শনাক্ত, নতুন মৃত্যু ২১
.............................................................................................
ঘরে বসেই ঈদের আনন্দ উপভোগ করুন : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
কোভিড-১৯ এ সর্বোচ্চ মৃত্যুর খবর
.............................................................................................
আম্পানে ক্ষয়ক্ষতিতে মমতাকে সমবেদনা জানালেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
দেশে করোনায় আরও ২৪ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৬৯৪
.............................................................................................
আম্ফানে ১১০০ কোটি টাকার ক্ষতি
.............................................................................................
করোনায় সর্বোচ্চ মৃত্যু ও শনাক্তের রেকর্ড
.............................................................................................
মৃত্যু ১৬ জনের একদিনে দেশে সর্বোচ্চ করোনা রোগী শনাক্ত
.............................................................................................
নতুন ১২৫১ জনের করোনা শনাক্ত, মৃত্যু ২১
.............................................................................................
আসছে ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড়, খুলনা দিয়ে ঢুকতে পারে দেশে
.............................................................................................
আরও ১৬ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ৯৩০
.............................................................................................
করোনায় মৃত্যু ১৫ জন নতুন আক্রান্ত রোগী ২০ হাজার ছাড়ালো
.............................................................................................
৫০ লাখ পরিবার পাচ্ছে নগদ অর্থ সহায়তা
.............................................................................................
দেশের সব মসজিদের ইমাম-মুয়াজ্জিনদের ‘ঈদ উপহার’ দেবেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
করোনায় আরও ১৪ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ১০৪১
.............................................................................................
না ফেরার দেশে জাতীয় অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান
.............................................................................................
করোনায় দেশে আরও ১৯ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১১৬২
.............................................................................................
ছুটি বাড়ছে ৩০ মে পর্যন্ত
.............................................................................................
দেশে ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ৯৬৯, নতুন মৃত্যু ১১
.............................................................................................
মৃত্যু আরও ১১ জন করোনা আক্রান্ত হাজার ছাড়ালো
.............................................................................................
মানুষের জীবন-জীবিকা চালাতে ঘোষিত বন্ধ শিথিল করা হচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
দেশে নতুন করে আরও ৮৮৭ আক্রান্ত, মৃত্যু ১৪
.............................................................................................
দেশে নতুন করে আরও করোন আক্রান্ত ৬৩৬ জন মৃত্যু ৮ জন
.............................................................................................
‘সারাদেশে ৯৫ শতাংশ শপিংমল খুলছে না’
.............................................................................................
গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে শেখ হাসিনার দেশে ফিরে আসার দিন আজ
.............................................................................................
দেশে নতুন করে আক্রান্ত ৭০৬, সুস্থ ১৩০ মৃত্যু ১৩
.............................................................................................

সম্পাদক ও প্রকাশক মো: আবদুল মালেক, যুগ্ন সম্পাদক: নজরুল ইসলাম ভূঁইয়া । সম্পাদক র্কতৃক ২৪৪ ( প্রথম তলা ) ৪ নং জাতীয় স্টেডিয়াম, কমলাপুর, ঢাকা -১২১৪ থেকে প্রকাশিত এবং স্যানমিক প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজেস, ৫২/২ টয়েনবি র্সাকুলার রোড, ঢাকা -১০০০ থেকে মুদ্রিত । ফোন:- ০২-৭২৭৩৪৯৩, মোবাইল: ০১৭৪১-৭৪৯৮২৪, E-mail: info@dailynoboalo.com, noboalo24@gmail.com Design Developed By : Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD