বাংলার জন্য ক্লিক করুন
   বৃহস্পতিবার, ১ অক্টোবর 2020 | ,২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৭
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   শিক্ষা -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
এসএসসিতে এবার পাসের হার বেশি

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে। এবার গড় পাসের হার ৮২.৮৭. শতাংশ। এর মধ্যে এসএসসিতে ৮৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ, মাদরাসায় ৮২ দশমিক ৫১ ও কারিগরিতে ৭২ দশমিক ৭০ শতাংশ।

গত বছর গড় পাসের হার ছিল ৮২ দশমিক ২০ শতাংশ। এবার তা বেড়ে ৮২ দশমিক ৮৭ শতাংশ হয়েছে। সারাদেশে মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ লাখ ৩৫ হাজার ৮৯৮ শিক্ষার্থী। গতবার জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১ লাখ ৫ হাজার ৫৯৪ জন। 

রোববার বেলা ১১টার দিকে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট থেকে ফেসবুক লাইভে ফলাফলের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন। এর আগে সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ফল ঘোষণা করেন।

ঘোষিত ফলাফলে ঢাকা বোর্ডে পাসের হার ৮২.৩৪ শতাংশ, যশোর বোর্ডে পাসের হার ৮৭ দশমিক ৩১ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৩ হাজার ৭৬৩ জন। কুমিল্লা বোর্ডে পাসের হার ৮৫.২২ শতাংশ, আর জিপিএ-৫ পেয়েছে ১০ হাজার ২৪৫ জন। দিনাজপুর বোর্ডে পাসের হার ৮২.৭৩। বরিশাল বোর্ডে ৭৯.৭০ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ হাজার ৪৮৩ জন। সিলেট বোর্ডে ৭৮.৭৯ শতাংশ। ময়মনসিংহ বোর্ডে পাসের হার ৮০.১৩ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭ হাজার ৪৩৪ জন। চট্টগ্রাম বোর্ডে পাসের হার ৮৪.৭৩ শতাংশ, জিপিএস-৫ পেয়েছে ৯ হাজার ৮ জন। রাজশাহীতে পাসের হার ৯০.৩৭ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৬ হাজার ১৬৭ জন।

বিজ্ঞান বিভাগে গতবছর পাসের হার ছিল ৯৪.৭২, এবার হয়েছে ৯৪.৫৪  শতাংশ। ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে গতবছর পাসের হার ছিল ৮৩.০৩, এবার হয়েছে ৮৪.৮০  শতাংশ। মানবিক বিভাগে গতবছর পাসের হার ছিল ৭৪.৩২, এবার হয়েছে ৭৬.৩৯  শতাংশ। 

বিদেশি কেন্দ্রগুলোতে পাসের হার ৯৪.৬৪ শতাংশ। মোট ৩৩৬ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেছে। এর মধ্যে পাস করেছে ৩১৮ জন।

দীপু মনি বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দীর্ঘ ছুটির কারণে নির্ধারিত সময়ে (পরীক্ষার পর ৬০ দিন) ফল প্রকাশ করা সম্ভব হয়নি। তবে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী সংশ্লিষ্টদের অক্লান্ত পরিশ্রমে এই পরিস্থিতিতেও ফল প্রকাশ করা যাচ্ছে।

শিক্ষামন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলনের পর দেশের সব শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হবে।

এবারই প্রথম ভার্চুয়াল মাধ্যমে ফল জানানো হচ্ছে। তাই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ফল জানানো হবে না। এবার কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেই ফল পাঠানো হবে না। আর ইতোমধ্যে যেসব শিক্ষার্থী মোবাইলে ফলাফল পেতে রেজিস্ট্রেশন করেছেন তাদের নির্ধারিত নম্বরে জিপিএ গ্রেডসহ ফলাফল পাঠানো হবে।

এছাড়া আগের মতো অনলাইনে বা ওয়েবসাইট ও টেলিটকে এসএমএস করে ফল জানার ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে।

এসএসসিতে এবার পাসের হার বেশি
                                  

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে। এবার গড় পাসের হার ৮২.৮৭. শতাংশ। এর মধ্যে এসএসসিতে ৮৩ দশমিক ৭৫ শতাংশ, মাদরাসায় ৮২ দশমিক ৫১ ও কারিগরিতে ৭২ দশমিক ৭০ শতাংশ।

গত বছর গড় পাসের হার ছিল ৮২ দশমিক ২০ শতাংশ। এবার তা বেড়ে ৮২ দশমিক ৮৭ শতাংশ হয়েছে। সারাদেশে মোট জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ লাখ ৩৫ হাজার ৮৯৮ শিক্ষার্থী। গতবার জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১ লাখ ৫ হাজার ৫৯৪ জন। 

রোববার বেলা ১১টার দিকে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট থেকে ফেসবুক লাইভে ফলাফলের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন। এর আগে সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ফল ঘোষণা করেন।

ঘোষিত ফলাফলে ঢাকা বোর্ডে পাসের হার ৮২.৩৪ শতাংশ, যশোর বোর্ডে পাসের হার ৮৭ দশমিক ৩১ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৩ হাজার ৭৬৩ জন। কুমিল্লা বোর্ডে পাসের হার ৮৫.২২ শতাংশ, আর জিপিএ-৫ পেয়েছে ১০ হাজার ২৪৫ জন। দিনাজপুর বোর্ডে পাসের হার ৮২.৭৩। বরিশাল বোর্ডে ৭৯.৭০ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ হাজার ৪৮৩ জন। সিলেট বোর্ডে ৭৮.৭৯ শতাংশ। ময়মনসিংহ বোর্ডে পাসের হার ৮০.১৩ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭ হাজার ৪৩৪ জন। চট্টগ্রাম বোর্ডে পাসের হার ৮৪.৭৩ শতাংশ, জিপিএস-৫ পেয়েছে ৯ হাজার ৮ জন। রাজশাহীতে পাসের হার ৯০.৩৭ শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৬ হাজার ১৬৭ জন।

বিজ্ঞান বিভাগে গতবছর পাসের হার ছিল ৯৪.৭২, এবার হয়েছে ৯৪.৫৪  শতাংশ। ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে গতবছর পাসের হার ছিল ৮৩.০৩, এবার হয়েছে ৮৪.৮০  শতাংশ। মানবিক বিভাগে গতবছর পাসের হার ছিল ৭৪.৩২, এবার হয়েছে ৭৬.৩৯  শতাংশ। 

বিদেশি কেন্দ্রগুলোতে পাসের হার ৯৪.৬৪ শতাংশ। মোট ৩৩৬ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেছে। এর মধ্যে পাস করেছে ৩১৮ জন।

দীপু মনি বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দীর্ঘ ছুটির কারণে নির্ধারিত সময়ে (পরীক্ষার পর ৬০ দিন) ফল প্রকাশ করা সম্ভব হয়নি। তবে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী সংশ্লিষ্টদের অক্লান্ত পরিশ্রমে এই পরিস্থিতিতেও ফল প্রকাশ করা যাচ্ছে।

শিক্ষামন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলনের পর দেশের সব শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হবে।

এবারই প্রথম ভার্চুয়াল মাধ্যমে ফল জানানো হচ্ছে। তাই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ফল জানানো হবে না। এবার কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেই ফল পাঠানো হবে না। আর ইতোমধ্যে যেসব শিক্ষার্থী মোবাইলে ফলাফল পেতে রেজিস্ট্রেশন করেছেন তাদের নির্ধারিত নম্বরে জিপিএ গ্রেডসহ ফলাফল পাঠানো হবে।

এছাড়া আগের মতো অনলাইনে বা ওয়েবসাইট ও টেলিটকে এসএমএস করে ফল জানার ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে।

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ ৩১ মে
                                  

এসএসসি, দাখিল ও সমমানের পরীক্ষার ফল আগামী ৩১ মে প্রকাশ হবে। ওই দিন সকাল ১০টায় গণভবনে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ ফল প্রকাশ করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন শিক্ষামন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল খায়ের।

তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে পাঠানো এক পত্রের মাধ্যমে উল্লেখিত তারিখ ও সময়ের বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

শিক্ষামন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, এবারের পরীক্ষার ফল অনলাইনেই ফল প্রকাশ করা হবে। শিক্ষার্থীরা ঘরে বসেই তাদের ফল পাবে।

প্রসঙ্গত, এ বছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয় ৩ ফেব্রুয়ারি। তত্ত্বীয় পরীক্ষা শেষ হয় ২৭ ফেব্রুয়ারি। আর ব্যবহারিক পরীক্ষা ২৯ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে শেষ হয় ৫ মার্চ।

ফের পেছালো জেএসসি-জেডিসি গণিত পরীক্ষা
                                  

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে আবার পেছানো হল জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট-জেএসসির গণিত বিষয়ের পরীক্ষা।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় রোববার জানিয়েছে, ১২ নভেম্বরের বদলে এ পরীক্ষা হবে ১৪ নভেম্বর সকাল ১০টায়। এর আগে একই কারণে এই পরীক্ষা ৯ নভেম্বর থেকে পিছিয়ে ১২ নভেম্বর তারিখ রাখা হয়েছিল।

এদিকে মাদ্রাসা বোর্ডে জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট-জেডিসিতে ১২ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় পরীক্ষাটি পিছিয়ে নেওয়া হয়েছে ১৫ নভেম্বর শুক্রবার সকাল ৯টায়।

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের কারণে শুক্রবার ৯ নভেম্বরের জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা পিছিয়ে যথাক্রমে ১২ ও ১৪ নভেম্বর নতুন তারিখ দেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এরপর ১১ নভেম্বরের জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা পিছিয়ে নেওয়া হয় যথাক্রমে ১৩ ও ১৬ নভেম্বর।

রোববার সেই সূচিতে আবার পরিবর্তন আনলো শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

পরিবর্তিত সূচি

পরীক্ষা                                 তারিখ                       বিষয়                     

জেএসসি                           ১৩ নভেম্বর                 বিজ্ঞান

                                         ১৪ নভেম্বর                  গণিত

জেডিসি                             ১৪ নভেম্বর                  গণিত

                                         ১৫ নভেম্বর*                 বিজ্ঞান

                                         ১৬ নভেম্বর                  ইংরেজি

* ১৫ নভেম্বরের জেডিসি পরীক্ষা হবে সকাল ৯টায়। অন্য দিন পরীক্ষা হবে স্বাভাবিক নিয়মে সকাল ১০টায়।

এসএসসির সময় সব কোচিং সেন্টার বন্ধ: শিক্ষামন্ত্রী
                                  

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরুর সাত দিন আগ থেকে শেষ পর্যন্ত (২২ জানুয়ারি থেকে ২৭ ফেব্রুয়ারি ) দেশের সব কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখা হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা নকলমুক্ত ও সুষ্ঠু পরিবেশে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে রোববার (২০ জানুয়ারি) বিকেলে রাজধানীতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে এই সংক্রান্ত জাতীয় তদারক ও আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত কমিটির সভা হয়। সভা শেষে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ নেয়ার কথাও তুলে ধরেন তিনি।

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেন, আগামী ২ ফেব্রুয়ারি শুরু হতে যাচ্ছে মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষা। এ পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস ও নিরাপত্তাজনিত কারণে ২২ জানুয়ারি থেকে ২৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সব কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এবার অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল কাগজে বাঁধিয়ে প্রশ্নপত্র পাঠানো হবে। এছাড়া আগের মতো পরীক্ষার্থীদের ৩০ মিনিট আগে কেন্দ্রে প্রবেশ করতে হবে। যদি বিশেষ কোনো কারণে কারও দেরি হয় সে ক্ষেত্রে দেরির কারণ ও পরীক্ষার্থীর নাম-ঠিকানা লিখে কেন্দ্রে প্রবেশ করতে হবে। পরীক্ষা কেন্দ্রের আশপাশে ১৪৪ ধারা জারি থাকবে। 

তিনি বলেন, প্রশ্নপত্র ফাঁস নিয়ে গুজব রটনাকারী শনাক্ত হলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। এবারও পরীক্ষার কেন্দ্রে কেউ মোবাইল নিতে পারবেন না। শুধু কেন্দ্রসচিব সাধারণ মানের একটি মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন।

আগামী ২ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি হবে তত্ত্বীয় পরীক্ষা। আর ২৬ ফেব্রুয়ারি সংগীত বিষয়ের এবং ২৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ১২ মার্চের মধ্যে অন্য বিষয়ের ব্যবহারিক পরীক্ষা হবে।

এবারও বহু নির্বাচনী (এমসিকিউ) অংশের উত্তর আগে দিতে হবে। পরে নেওয়া হবে সৃজনশীল/রচনামূলক অংশের পরীক্ষা।

এ বছর এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় মোট ২১ লাখ ৩৭ হাজার ৩৬০ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণ করবে। সারা দেশে মোট ৩৪৯২টি কেন্দ্রে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা আয়োজন করা হবে।

প্রায় সব ধরনের পাবলিক পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগের মধ্যে গত বছরও এসএসসির তিন দিন আগ থেকে পরীক্ষা শেষ হওয়া পর্যন্ত সব ধরনের কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছিল সরকার।

অন্যদের মধ্যে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব সোহরাব হোসাইন, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর ছাড়াও জাতীয় মনিটরিং ও আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত কমিটির সদস্যরা সভায় উপস্থিত ছিলেন।

ঢাবি ক ইউনিটের ফল প্রকাশ, পাসের হার ১৩ শতাংশ
                                  

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে বিজ্ঞান অনুষদের অধীন ক ইউনিটের ১ম বর্ষ স্নাতক সম্মান শ্রেণিতে ভর্তি পরীক্ষায় ১৩.৪ শতাংশ পাস করেছে। এই পরীক্ষায় এবার অংশ নেন ৭৭ হাজার ৫৭২ জন ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী। এর মধ্যে পাস করে ১০ হাজার ১১৭ জন। ক ইউনিটের অধীনে আসন রয়েছে ১ হাজার ৭৫০টি। 

বুধবার দুপুরে ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামান প্রশাসনিক ভবনের কেন্দ্রীয় ভর্তি অফিসে আনুষ্ঠানিকভাবে এই ফলাফল প্রকাশ করেন। পরীক্ষার বিস্তারিত ফলাফল এবং ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পর্কে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে (admission.eis.du.ac.bd) জানা যাবে। এ ছাড়া DU KA লিখে রোল নম্বর লিখে 16321 নম্বরে send করে ফিরতি SMS-এ ফলাফল জানা যাবে।

পাসকৃত শিক্ষার্থীরা আগামী ১৭ অক্টোবর খেকে ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষার ওয়েবসাইটে পছন্দ তালিকা পূরণ করতে পারবে। কোটায় আবেদনকারী উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীদের কোটার ফরম ৮ অক্টোবর থেকে ১১ অক্টোবরের মধ্যে কলা অনুষদের ডিন অফিস থেকে সংগ্রহ করতে হবে এবং যথাযথভাবে পূরণ করে জমা দিতে হবে। ফলাফল নিরীক্ষণের জন্য নির্ধারিত ফি প্রদান সাপেক্ষে ৪ অক্টোবর থেকে ১১ অক্টোবরের মধ্যে কলা অনুষদের ডিন অফিসে আবেদন করা যাবে।

প্রকাশিত হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর তৃতীয় গ্রন্থ ‘নয়া চীন ভ্রমণ’
                                  

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের লেখা তৃতীয় গ্রন্থ ‘নয়া চীন ভ্রমণ’ প্রকাশিত হচ্ছে। বইটি প্রকাশ করছে বাংলা একাডেমি। একই সাথে বঙ্গবন্ধুর এই ‘নয়া চীন ভ্রমণ’ বইটি ইংরেজী ভাষায়ও প্রকাশিত হচ্ছে। ইংরেজি ভাষায় বইটি অনুবাদ করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ফকরুল আলম। তিনি বঙ্গবন্ধুর লেখা দ্বিতীয় গ্রন্থ এবং বাংলা একাডেমি প্রকাশিত ‘কারাগারের রোজনামচা’ বইটিও ইংরেজি ভাষায় অনুবাদ করেছেন। খবর বাসস’র

বঙ্গবন্ধুর ‘নয়া চীন ভ্রমণ’ বইটির প্রথম প্রকাশ ২০ হাজার কপি ছাপা হবে। বাংলা একাডেমি আয়োজিত আগামী অমর একুশের গ্রন্থমেলার উদ্বোধনী দিন থেকেই বইটি মেলায় পাঠকরা ক্রয় করতে পারবেন বলে একাডেমি কর্তৃপক্ষ আশা প্রকাশ করছেন। ইংরেজী ভাষায়ও বইটি একই সময়ে প্রকাশের টার্গেট করেছে বাংলা একাডেমি।

বইটি সম্পাদনার দায়িত্বে নিয়োজিত বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক ও লোক গবেষক অধ্যাপক শামসুজ্জমান খান এ সব তথ্য জানান। তিনি জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু চীন সফর করেছিলেন। তাঁর এই সফরের উপর তিনি ডায়েরি লিখেছেন। এই ডায়েরিই হচ্ছে ‘নয়া চীন ভ্রমণ’ বইটি।

তিনি জানান, বইটির প্রকাশনার কাজ এগিয়ে চলছে। বইয়ের গ্রন্থস্বত্ব থাকছেন ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরোরিয়াল ট্রাস্ট’। ভূমিকা লিখছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ কন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর ভূমিকা লেখা পাওয়া গেলেই বইটির ছাপার কাজ সম্পন্ন হবে। তিনি বলেন, বাংলা একাডেমিতে আগামী অমর একুশের গ্রন্থমেলার উদ্বোধনী দিনেই বঙ্গবন্ধুর লেখা ‘নয়া চীন ভ্রমণ’ বইটির আনুষ্ঠানিকভাবে মোড়ক উন্মোচন করার আশা করছেন তারা।

তিনি জানান, একই সাথে ‘নয়া চীন ভ্রমণ’ বইটির ইংরেজি প্রকাশনাও সম্পন্ন করার টার্গেট করা হয়েছে। দুটি বইয়ের কাজ একই সাথে চলছে। একাডেমি থেকে প্রকাশিত বঙ্গবন্ধুর ‘কারাগারের রোজনামচা’ গ্রন্থটির ইংরেজী অনুবাদক অধ্যাপক ফকরুল আলম ‘নয়া চীন’ বইটির অনুবাদের কাজ করছেন।

বইটির প্রকাশক থাকছেন বাংলা একাডেমির গবেষণা, সংকলন ও অভিধান বিভাগের পরিচালক মোবারক হোসেন। তিনি জানান, বইটি প্রকাশের কাজ অনেক দূর এগিয়েছে। আগামী ডিসেম্বরের মধ্যেই প্রকাশনার কাজ শেষ হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রথম বই ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ প্রকাশ করেছিল ঢাকার প্রকাশনা সংস্থা ইউপিএল। এরপর তাঁর দ্বিতীয় গ্রন্থ ‘কারাগারের রোজনামচা’ প্রকাশ করে বাংলা একাডেমি। তৃতীয় গ্রন্থ ‘নয়া চীন ভ্রমণ’ও প্রকাশ করছে বাংলা একাডেমি।

স্কুল ঘরটি টিনসেড :ফলাফল উপজেলায় শীর্ষে
                                  

স্কুলটিতে কোন ভবন নাই। একটি মাত্র টিনসেড ঘর। বৃষ্টি এলেই পানি পড়ে। বর্ষাকালে স্কুল মাঠে হাটু সমান পানি জমে থাকে। তারপরেও দুরদুরান্ত থেকে আসা শিক্ষার্থীরা ক্লাস করে থাকে। শিক্ষকরা অনেক কষ্টে শ্রেণি পাঠদান করে থাকেন। স্কুল ঘরটি টিন সেডের, তারপরেও চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষায় উপজেলায় শীর্ষ স্থান অর্জন করেছে মনোহরগঞ্জ উপজেলার হাসনাবাদ ইউনিয়নে অবস্থিত নয়নপুর পল্লী মঙ্গল উচ্চ বিদ্যালয়। এ বিদ্যালয়ে মোট ৩৫০ জন ছাত্র-ছাত্রী লেখাপড়া করছে। এবারের এসএসসি পরীক্ষায় ৩২ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে পাস করেছে ৩১ জন। পাসের হার ৯৬.৮৮%। ফলাফলে উপজেলার নামিদামী প্রতিষ্ঠানগুলো থেকেও প্রথম স্থানে রয়েছে।

লাকসাম-মনোহরগঞ্জ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মোঃ তাজুল ইসলাম বিদ্যালয়টির মাঠ ভরাটের জন্য বরাদ্দ দিয়েছেন। এছাড়াও বিদ্যালয়ের টিনসেড ঘরটি মেরামতের জন্য কুমিল্লা জেলা পরিষদ থেকে ১ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। বিদ্যালয়ের বিএসসি শিক্ষক তাজুল ইসলাম বলেন, ভাঙা টিনের ঘরে  পাঠদান করতে আমাদের অনেক কষ্ট হয়। ঝড়-বৃষ্টি হলে শিক্ষার্থীরা ভয়ে বিদ্যালয়ে আসতে চায় না। সামান্য বৃষ্টিতেই শ্রেণিকক্ষ পানিতে ডুবে যায়। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোশারেফ হোসেন জানান, বিদ্যালয়টিতে একটি মাত্র টিনসেড ঘর ছাড়া আর কোন বিকল্প ব্যবস্থা নেই। অনেক কষ্টে আমরা শ্রেণি পাঠদান চালিয়ে যাই। ছোট টিনের ঘরটিতে শিক্ষার্থীদের বসার জায়গা হয় না। তাদের জন্য আরোও বেশি কক্ষের প্রয়োজন। বিদ্যালয়টিতে পর্যাপ্ত আসবাবপত্র নেই।

বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও হাসনাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ কামাল হোসেন জানান, বিদ্যালয়টিতে কোন ভবন নেই। তারপরেও আমরা বিদ্যালয়টিতে সহযোগিতা করার চেষ্টা করছি। তাই মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য মোঃ তাজুল ইসলাম মহোদয়ের প্রতি বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক, ম্যানেজিং কমিটি, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের দাবী, এই বিদ্যালয়ে একটি নতুন ভবন করে দিয়ে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ যাতে ফিরিয়ে আনা হয়।

ঢাবি ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের ৭০ বছর পূর্তি উৎসবের উদ্বোধন
                                  

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের ৭০ বছর পূর্তি উপলক্ষে দু’দিনব্যাপী উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শুক্রবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজী মোতাহার হোসেন ভবন প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়েছে।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে এবং কেক কেটে বর্ণাঢ্য এই উৎসবের উদ্বোধন করেন।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ এবং আর্থ এন্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সেস অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল।
বিভাগের চেয়ারপার্সন অধ্যাপক ড. হাফিজা খাতুনের সভাপতিত্বের অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগ অ্যালামনাই এসোসিয়েশনের সভাপতি ও প্রাক্তন শিক্ষার্থী এ কে দীন মোহাম্মদ। এসময় প্রাক্তন শিক্ষকদের সম্মাননা, বর্তমান চার শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদানসহ বিভাগের পূর্তি উপলক্ষে প্রকাশিত স্মারক সংকলনের মোড়ক উন্মোচন করেন উপাচার্য।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বিভাগের ৭০ বছর পূর্তি উৎসব আয়োজনের জন্য বিভাগের আয়োজক কমিটিকে ধন্যবাদসহ অংশগ্রহণকারী বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের প্রতি শুভেচ্ছা জানান।
উপাচার্য বলেন, ‘ঐতিহ্যবাহী ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগ ৭০ বছরে বহু খ্যাতিমান ব্যক্তিত্ব তৈরি করেছে। এই ব্যক্তিত্বরা আমাদের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গৌরব। তাদের মূল্যবোধগুলো আমাদের গৌরব। তাদের মূল্যবোধগুলো আমরা যদি নিজেদের মাঝে ধারণ করতে পারি তবে আমরা সৌভাগ্যবান’।
প্রাক্তন শিক্ষকদের সম্মাননা প্রদান প্রসঙ্গে উপাচার্য বলেন, ‘যাদের সম্মাননা দেওয়া হল, তাদের প্রভাব যেন সমাজে পড়ে, আমাদের মাঝে প্রতিফলিত হয়’।

বঙ্গবন্ধু শুধু বাংলাদেশ বা এশিয়ার নেতা নয়, তিনি বিশ্বনেতা : ঢাবি উপাচার্য
                                  

 ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আখতারুজ্জামান বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শুধু বাংলাদেশ বা এশিয়ার নেতা নয়, তিনি বিশ্বনেতা। বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ ইউনেস্কো কর্তৃক ‘বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য’র স্বীকৃতিপ্রাপ্তির উদ্বৃতি দিয়ে তিনি বলেন, ‘এটি আজ বিশ্বের নিপীড়িত ও বঞ্চিত মানুষের অনুপ্রেরণা। বঙ্গবন্ধুর সার্বজনীন ভাষণ ও তার অবদান আজও স্মরণীয় এবং ভবিষ্যতেও অনুপ্রেরণা জোগাবে’। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের উদ্যোগে ‘বঙ্গবন্ধু মেধাবৃত্তি ও সম্মাননা বক্তৃতা-২০১৭’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
গতকাল বুধবার হলের সেমিনার কক্ষে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে উপাচার্য মোঃ আখতারুজ্জামান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিভিন্ন অনুষদের ৪জন শিক্ষার্থীর মাঝে বৃত্তির চেক, সার্টিফিকেট ও ক্রেস্ট প্রদান করেন। সম্মাননা বক্তৃতা করেন বিশ্ব শিক্ষক ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও ডাকসু’র সাবেক ভিপি অধ্যাপক মাহফুজা খানম। হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক মফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল। অধ্যাপক ড. আবদুস সবুর খানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু হলের আবাসিক শিক্ষকবৃন্দ ছাড়াও বিভিন্ন অনুষদের পরিচালক, বিভাগের চেয়ারম্যানবৃন্দ ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।
উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আখতারুজ্জামান ১৯৫২ থেকে ১৯৭১ পর্যন্ত বিভিন্ন সংগ্রাম আন্দোলনে শহীদদের গভীর শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করে তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে স্বীকার না করার যে প্রবণতা- তা এখন আর নেই, সবার দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন হয়েছে। ইতিহাসের নিজস্ব একটি গতি আছে, সত্যের একটি শক্তি আছে’। মেধাবৃত্তিপ্রাপ্তদের অভিনন্দন জানিয়ে তিনি বলেন, একজন ভাল শিক্ষার্থীর প্রভাব অন্যান্য অনেক শিক্ষার্থীর উপরও পড়ে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শতবর্ষপূর্তী উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের মহাপরিকল্পনার অংশ হিসেবে বঙ্গবন্ধু হলের সৌন্দর্য্য বর্ধনের ইঙ্গিত দেন উপাচার্য।
এ বছর মেধাবৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা হলেন, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের মো. আহসান নাহিদ, ইতিহাস বিভাগের মো. হাবিবুল্লাহ, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সাইদুল হাওলাদার ও ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট এন্ড ভালনারেবিলিটি স্টাডিজ ইনস্টিটিউটের মো. হাসনাইন।
উল্লেখ্য, ৫ বছর আগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের নিজস্ব অর্থায়নে ১০লক্ষ টাকা দিয়ে শুরু হয় বঙ্গবন্ধু মেধাবৃত্তি। এই হলের শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিভিন্ন বিভাগে অনার্সে সর্বোচ্চ সিজিপিএ প্রাপ্তদের দেয়া হয় এই মেধাবৃত্তি।

রাজধানীর ৯৭ জন শিক্ষকের বিরুদ্ধে দুদকের চিঠি
                                  

ঢাকা মহানগরের স্বনামধন্য আটটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৯৭ জন শিক্ষকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে চিঠি পাঠিয়েছে দুদক। রোববার (০৩ ডিসেম্বর) চিঠিটি স্বাক্ষর হয়ে সোমবার (০৪ ডিসেম্বর) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে পাঠানো হয়েছে।

স্কুলগুলোর মধ্যে সরকারি চারটি ও বেসরকারি চারটি স্কুল রয়েছে।

দুদকের উপপরিচালক (জনসংযোগ) প্রবণ কুমার ভট্টাচার্য চিঠির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সরকারি চারটি স্কুলের মধ্যে মতিঝিল সরকারি বালক উচ্চবিদ্যালয়ের ১২ জন, ধানমন্ডি গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাইস্কুলের ৮ জন, মতিঝিল সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের ৪ জন এবং খিলগাঁও সরকারি উচ্চবিদ্যালয়ের ১ জন শিক্ষক রয়েছেন।

আর বেসরকারি স্কুলগুলোর মধ্যে আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ৩৬ জন শিক্ষক, মতিঝিল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ২৪ জন, ঢাকা ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ৭ জন, রাজউক স্কুল অ্যান্ড কলেজের ৫ জন রয়েছেন।

 সরকারি স্কুলের শিক্ষকদের বিরুদ্ধে সরকারি কর্মচারী বিধিমালা অনুযায়ী অসদাচরণ হিসেবে গণ্য করে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া যায় বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়।

১ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু এসএসসি পরীক্ষা
                                  

আগামী বছরের (২০১৮) মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ করা হয়েছে। আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের এসএসসি, মাদরাসা বোর্ডের দাখিল ও কারিগরি বোর্ডের পরীক্ষা শুরু হচ্ছে আগামী ১ ফেব্রুয়ারি।

বুধবার (২২ নভেম্বর) শিক্ষা মন্ত্রণালয় এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার সময়সূচি অনুমোদন দিয়ে সংশ্লিষ্ট বোর্ড চেয়ারম্যানদের কাছে পাঠিয়েছে।

আইনগত বাধ্যবাধকতা না থাকলেও সরকার সাধারণত ১ ফেব্রুয়ারি এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু করে থাকে। অন্যান্য বছরের মতো এবারও সকালের পরীক্ষা ১০টা থেকে এবং বিকেলের পরীক্ষা ২টা থেকে শুরু হবে।

সময়সূচি অনুযায়ী ১ থেকে ২৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এসএসসির তত্ত্বীয় পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এক্ষেত্রে আগামী ২৫ ফেব্রুয়ারি সঙ্গীতের ব্যবহারিক পরীক্ষা এবং ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ৪ মার্চের মধ্যে বেসিক ট্রেডসহ এসএসসির সব বিষয়ের ব্যবহারিক পরীক্ষা নেয়ার কথা বলা হয়েছে।

দাখিলের তত্ত্বীয় পরীক্ষা শেষ হবে ২৫ ফেব্রুয়ারি। এক্ষেত্রে ৬ মার্চের মধ্যে সব ব্যবহারিক ও মৌখিক পরীক্ষা শেষ করতে হবে। কারিগরি বোর্ডের তত্ত্বীয় পরীক্ষা শেষ হবে ২৪ ফেব্রুয়ারি।

এবার থেকেই শারীরিক শিক্ষা, স্বাস্থ্য বিজ্ঞান ও খেলাধূলা এবং ক্যারিয়ার শিক্ষা বিষয়ের পরীক্ষা হচ্ছে না।

এ সব বিষয়ে ধারাবাহিক মূল্যায়নের মাধ্যমে প্রাপ্তনম্বর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রকে সরবরাহ করবে। সংশ্লিষ্ট কেন্দ্র ব্যবহারিক পরীক্ষার নম্বরের সঙ্গেই ধারাবাহিক মূল্যায়নের প্রাপ্ত নম্বর বোর্ডের ওয়েসবাইটে অনলাইনে পাঠাবে বলে পরীক্ষার সময়সূচিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

আগামীকাল থেকে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা শুরু
                                  

আগামীকাল ১৯ নভেম্বর থেকে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষা শুরু হবে।
দেশের সাত হাজার ২৬৭টি এবং বিদেশের ১২টি কেন্দ্রে অনুষ্ঠেয় প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা চলবে ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত।
সারা দেশে মোট প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনীতে ৩০ লাখ ৯৬ হাজার ৭৫ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করবে।
এবার দুই হাজার প্রাথমিকে ৯৫৩ জন এবং ইবতেদায়ীতে ৩৭৯ জন ‘বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন’ পরীক্ষার্থী অংশ নেবে । এই শিক্ষার্থীদের অতিরিক্ত ২০ মিনিট সময় দেওয়া হবে।
প্রশ্নপত্র ফাঁসরোধে এবার থেকে পরীক্ষাকেন্দ্রে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পরীক্ষা শুরুর ৫ মিনিট আগে প্রশ্নপত্র সরবরাহ করবে এবং এসময় কোন পরীক্ষাকেন্দ্রে মোবাইল ব্যবহার করা যাবে না বলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়।
বুধবার সচিবালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান বলেছেন, প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকাতে গত বছর থেকে দেশের ৬৪ জেলাকে বিশেষ আটটি অঞ্চলে ভাগ করে আট সেট প্রশ্ন ছাপিয়ে প্রাথমিক ও ইবেতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা নিচ্ছে সরকার। পরীক্ষার দায়িত্ব পালনে অবহেলা বা অনিয়মের ক্ষেত্রে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি গ্রহণ করা হবে।
ইতোমধ্যে প্রশ্নপত্র ফাসরোধে বিশেষ নিরাপত্তায় জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে এবং দুর্গম এলাকার ২০৪টি কেন্দ্রে বিশেষ ব্যবস্থায় প্রশ্নপত্র পাঠানো হয়েছে।
মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, পরীক্ষা শুরুর দিন বেলা ১১ টায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী রাজধানীর মতিঝিলের আইডিয়াল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কেন্দ্র পরিদর্শন করবেন।

দ্বিতীয় দিনে অনুপস্থিত ৬২ হাজার, বহিষ্কার ২০
                                  

জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষার দ্বিতীয় দিন সারাদেশে ৬১ হাজার ৯৮৯ জন পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিল। এ ছাড়া বহিষ্কৃত হয়েছে ২০ জন। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে ১টা পর্যন্ত জেএসসিতে বাংলা দ্বিতীয় পত্র এবং জেডিসিতে আকাইদ ও ফিকহ বিষয়ের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

পরীক্ষার নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র সূত্রে জানা গেছে, দ্বিতীয় দিন অষ্টম শ্রেণির এই পরীক্ষায় ২৩ লাখ ২৮ হাজার ৩৫৯ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়। এদিন ঢাকা বোর্ডে ১৩ হাজার ৮২৫ জন এবং রাজশাহী বোর্ডে চার হাজার ৮০০ জন শিক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিল। এছাড়া কুমিল্লা বোর্ডে চার হাজার ৬৭০ জন, যশোরে চার হাজার ৯৫৫ জন, চট্টগ্রামে দুই হাজার ৯৩৯ জন, সিলেটে দুই হাজার ৪৩১ জন, বরিশালে তিন হাজার ৩৯৪ জন এবং দিনাজপুর বোর্ডে চার হাজার ৪৮২ জন শিক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিল। আর মাদরাসা বোর্ডে জেডিসিতে ২০ হাজার ৫৯৩ জন শিক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিল বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। পরীক্ষায় নকলের দায়ে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে ১১ জন, মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে সাতজন এবং কুমিল্লা ও বরিশাল বোর্ডে একজন করে পরীক্ষার্থী বহিষ্কার হয়েছে।

উল্লেখ্য, দেশের ২৮ হাজার ৬২৮টি স্কুল ও মাদরাসার অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা দুই হাজার ৮৩৪টি কেন্দ্রে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। এই পরীক্ষা চলবে ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত।

জেএসসি পরীক্ষার প্রথম দিনেই অনুপস্থিত ৬০ হাজার
                                  

নিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষা শুরু হয়েছে। বুধবার সারাদেশে সাধারণ ৮টি শিক্ষাবোর্ড ও মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের অধীনে জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষা শুরু হয়েছে। জেএসসিতে বাংলা প্রথমপত্র এবং জেডিসিতে কোরআন মাজিদ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। অন্যদিকে পরীক্ষার প্রথম দিনেই ৬০ হাজার ৮৯৩ পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিল। আর পরীক্ষায় নানা অসুপদায় অবলম্বনের দায়ে ১৬জন পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। পরীক্ষার শুরুর ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষার্থীদের কেন্দ্র প্রবেশ করানো, কেন্দ্র সচিব ছাড়া ছবি তোলা যায় এই ধরনের মোবাইল নিয়ে কেন্দ্র প্রবেশ না করাসহ ১০ দফা নির্দেশনা দিয়েছে শিক্ষাবোর্ডগুলো

জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে মঙ্গলবার
                                  

চলতি সালের জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা বুধবার থেকে শুরু হচ্ছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, এ বছর দেশব্যাপী ২ হাজার ৮শ’ ৩৪টি পরীক্ষা কেন্দ্রে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।
এ বছর ২৮ হাজার ৬শ’ ২৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মোট ২৪ লাখ ৬৮ হাজার ৮শ’ ২০ জন পরীক্ষার্থী এ দু’টি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করবে। এরমধ্যে ১১ লাখ ৪৪ হাজার ৭শ’ ৭৮ জন ছাত্র এবং ১৩ লাখ ২৪ হাজার ৪২ জন ছাত্রী রয়েছে।
এবার জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় ছাত্রের তুলনায় ছাত্রীর সংখ্যা ১ লাখ ৭৯ হাজার ২ শ’ ৬৪ জন বেড়েছে। পাশাপাশি, গত বছরের তুলনায় এ বছর পরীক্ষার্থীর সংখ্যাও ৫৬ হাজার ৪৫ জন বৃদ্ধি পেয়েছে। এজন্য পরীক্ষা কেন্দ্রের সংখ্যাও ১শ’ টি বাড়ানো হয়েছে। তবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কমেছে ১শ’ ৩৩টি।
এ বছর জেএসসি পরীক্ষায় অনিয়মিত পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৯৬ হাজার ২শ’ ১২ জন এবং জেডিসি পরীক্ষায় ১৪ হাজার ৩শ’ ৬৭ জন।
শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, এ বছর বাংলাদেশের বাইরে সৌদি আরব, লিবিয়া, কাতার, সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই), বাহরাইন ও ওমানের মোট ৯টি কেন্দ্রে ৬শ’ ৫৯ জন পরীক্ষার্থী জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় অংশে নিচ্ছে।
শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বিভাগের সচিব সোহরাব হোসেন এবং মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

হলে ঢুকতে হবে পরীক্ষা শুরুর আধা ঘণ্টা আগে
                                  

জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) এবং জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে পরীক্ষা শুরুর কমপক্ষে ৩০ মিনিট আগে কেন্দ্রে প্রবেশ করে আনুষঙ্গিক কার্যক্রম শেষ করতে হবে পরীক্ষার্থীদের এমন সিদ্ধান্তই নেয়া হয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত মনিটরিং সেলের বৈঠকে।

মঙ্গলবার (২৪ অক্টোবর) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। 

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‌‘৩০ মিনিট আগে যেসব পরীক্ষার্থী কেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারবে না তাদের আর কেন্দ্রে ঢুকতে দেওয়া হবে না। সভায় জেএসসি ও সমমান পরীক্ষা সুষ্ঠু, নকলমুক্ত এবং ইতিবাচক পরিবেশে অনুষ্ঠানের জন্য আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ, প্রশ্নপত্র পাশের গুজব ছড়ানো রোধ, ফেসবুকে প্রশ্ন সরবরাহকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়াসহ সার্বিক বিষয়ে আলোচনা হয়। এ ছাড়া প্রশ্নপত্র মুদ্রণ, বিতরণ, সংরক্ষণ ও পরীক্ষা গ্রহণের সার্বিক প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা হয়। পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনের লক্ষ্যে মোবাইল কোর্ট (ভ্রাম্যমাণ আদালত) চালু থাকবে। পরীক্ষায় কোনো অনিয়ম বা প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনা ঘটলে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ছাড়া পরীক্ষা সংক্রান্ত একটি কন্ট্রোল রুম চালু থাকবে।’

তিনি বলেন, ‘পরীক্ষার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট শিক্ষক বা কোনো ব্যক্তি কোনো মোবাইল ফোন সঙ্গে রাখতে পারবেন না। শুধু পরীক্ষা কেন্দ্রের সচিব যোগাযোগের জন্য একটি সাধারণ ফোন সঙ্গে রাখতে পারবেন।’

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘এ পরীক্ষায় যাতে কোনো অনিয়ম, নকল বা প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনা না ঘটে সেদিকে সংশ্লিষ্ট সবাইকে কঠোর নজর রাখতে হবে। এবার আরও উন্নত শৃঙ্খলা ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।’

সভায় মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন, কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব চৌধুরী মুফাদ আহমদ, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. এস এম ওয়াহিদুজ্জামান, বিভিন্ন শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান, পুলিশ, র‌্যাব,  সিআইডি ও এনএসআই প্রতিনিধি এবং জনপ্রশাসন, স্বরাষ্ট্র, তথ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। 

এবারের জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা ১ নভেম্বর শুরু হবে এবং ১৮ নভেম্বর শেষ হবে।


   Page 1 of 6
     শিক্ষা
এসএসসিতে এবার পাসের হার বেশি
.............................................................................................
এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ ৩১ মে
.............................................................................................
ফের পেছালো জেএসসি-জেডিসি গণিত পরীক্ষা
.............................................................................................
এসএসসির সময় সব কোচিং সেন্টার বন্ধ: শিক্ষামন্ত্রী
.............................................................................................
ঢাবি ক ইউনিটের ফল প্রকাশ, পাসের হার ১৩ শতাংশ
.............................................................................................
প্রকাশিত হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর তৃতীয় গ্রন্থ ‘নয়া চীন ভ্রমণ’
.............................................................................................
স্কুল ঘরটি টিনসেড :ফলাফল উপজেলায় শীর্ষে
.............................................................................................
ঢাবি ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগের ৭০ বছর পূর্তি উৎসবের উদ্বোধন
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধু শুধু বাংলাদেশ বা এশিয়ার নেতা নয়, তিনি বিশ্বনেতা : ঢাবি উপাচার্য
.............................................................................................
রাজধানীর ৯৭ জন শিক্ষকের বিরুদ্ধে দুদকের চিঠি
.............................................................................................
১ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু এসএসসি পরীক্ষা
.............................................................................................
আগামীকাল থেকে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা শুরু
.............................................................................................
দ্বিতীয় দিনে অনুপস্থিত ৬২ হাজার, বহিষ্কার ২০
.............................................................................................
জেএসসি পরীক্ষার প্রথম দিনেই অনুপস্থিত ৬০ হাজার
.............................................................................................
জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে মঙ্গলবার
.............................................................................................
হলে ঢুকতে হবে পরীক্ষা শুরুর আধা ঘণ্টা আগে
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধু অবৈতনিক ও বাধ্যতামূলক শিক্ষার সাংবিধানিক ধারার প্রবর্তন করেছিলেন
.............................................................................................
শাবিতে ভর্তি আবেদন শুরু ১৫ অক্টোবর
.............................................................................................
মেডিকেলের ফল প্রকাশ যে কোনো মুহূর্তে
.............................................................................................
এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষা কাল
.............................................................................................
বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আতিউর রহমান
.............................................................................................
ঢাবির ‘খ’ ইউনিটে পাশের হার ১৬.৫৬ %
.............................................................................................
ঢাবি ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা কাল
.............................................................................................
বাকৃবির ভর্তি পরীক্ষা ৪ নভেম্বর
.............................................................................................
১৫ সেপ্টেম্বর ভর্তি পরীক্ষা শুরু ঢাবিতে আসনপ্রতি লড়বেন ৩৯ জন
.............................................................................................
জেএসসি জেডিসি পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ
.............................................................................................
বিদেশে প্রশিক্ষণের অভিজ্ঞতা কর্মক্ষেত্রে প্রয়োগ করতে হবে : শিক্ষামন্ত্রী
.............................................................................................
মাদকের ছোবল থেকে যুব সমাজকে রক্ষা করতে হবে : ওবায়দুল কাদের
.............................................................................................
সরকার কারিগরি শিক্ষাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছে : শিক্ষামন্ত্রী
.............................................................................................
এই লেখাটি অভিভাবকদের জন্য
.............................................................................................
ছেলেদের চেয়ে মেয়েরা এগিয়ে
.............................................................................................
পরীক্ষার উত্তরপত্র মূল্যায়নের কারণেই পাসের হার কমেছে : শিক্ষামন্ত্রী
.............................................................................................
শিক্ষায় সরকারের বড় সাফল্য, বিজ্ঞানে শিক্ষার্থীর সংখ্যা বৃদ্ধি করা : নাহিদ
.............................................................................................
শিক্ষায় সরকারের বড় সাফল্য, বিজ্ঞানে শিক্ষার্থীর সংখ্যা বৃদ্ধি করা : নাহিদ
.............................................................................................
কোচিং বাণিজ্য ও গাইড বই বন্ধে আইন হচ্ছে : নাহিদ
.............................................................................................
আইবিএতে দক্ষ জনবল তৈরি করতে হবে : শিরীন শারমিন চৌধুরী
.............................................................................................
বাংলাদেশ-ভুটান বিদ্যুৎ, পানিসম্পদ ও যোগাযোগ খাতে কাজ করবে
.............................................................................................
চবিতে দফায় দফায় ছাত্রলীগ-পুলিশ সংঘর্ষ
.............................................................................................
নতুন প্রজন্মকে গুণগত ও মানসম্পন্ন শিক্ষা অর্জন করতে হবে : শিক্ষামন্ত্রী
.............................................................................................
শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ও শেখ হাসিনার নামে বিশ্ববিদ্যালয়
.............................................................................................
কারিগরি শিক্ষা খাতের ৫৮১ জন শিক্ষক-কর্মকর্তা চীনে প্রশিক্ষণ নিবেন : ১ম ব্যাচের প্রশিক্ষণ শুরু
.............................................................................................
পাঠ্যপুস্তক বিতরণের এ কার্যক্রম বিশ্বে অতুলনীয় : শিক্ষামন্ত্রী
.............................................................................................
শিক্ষার মান উন্নয়নে সমালোচকদের ভলান্টারি সার্ভিস দিতে বললেন প্রধানমন্ত্রী
.............................................................................................
স্কুল-কলেজে লেখাপড়া করে জঙ্গিবাদে জড়িত হওয়াটা একেবারেই অপ্রত্যাশিত : ড. আরেফিন সিদ্দিক
.............................................................................................
জেএসসি ও পিইসি’র ফল প্রকাশ বৃহস্পতিবার
.............................................................................................
৩৭তম বিসিএস লিখিত পরীক্ষা ১২ ডিসেম্বর শুরু
.............................................................................................
২০১৭ সালে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৮৫ দিন ছুটি
.............................................................................................
শিশুর ওজনের ১০ ভাগের ভারী স্কুলব্যাগ নিষিদ্ধ
.............................................................................................
ভিকারুননিসায় ১ম শ্রেণিতে ভর্তির আবেদন শুরু
.............................................................................................
জেএসসি-জেডিসিতে বসছে ২৪ লাখ শিক্ষার্থী
.............................................................................................

সম্পাদক ও প্রকাশক মো: আবদুল মালেক, যুগ্ন সম্পাদক: নজরুল ইসলাম ভূঁইয়া । সম্পাদক র্কতৃক ২৪৪ ( প্রথম তলা ) ৪ নং জাতীয় স্টেডিয়াম, কমলাপুর, ঢাকা -১২১৪ থেকে প্রকাশিত এবং স্যানমিক প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজেস, ৫২/২ টয়েনবি র্সাকুলার রোড, ঢাকা -১০০০ থেকে মুদ্রিত । ফোন:- ০২-৭২৭৩৪৯৩, মোবাইল: ০১৭৪১-৭৪৯৮২৪, E-mail: info@dailynoboalo.com, noboalo24@gmail.com Design Developed By : Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD