বাংলার জন্য ক্লিক করুন
   রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর 2020 | ,২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৭
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   তথ্য -প্রযুক্তি -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন প্রচার করবে না গুগল

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে রাজনৈতিক বার্তা ছড়িয়ে বিভিন্ন দেশের নির্বাচন প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ বেশ পুরনো। এ অভিযোগ থেকে মুক্তি পেতে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন প্রচার নিষিদ্ধে করার পক্ষে নীতিগত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে গুগল। প্রতিষ্ঠানটির ইউটিউব ও গুগল সার্চ প্লাটফর্মে রাজনৈতকি প্রচার করার ক্ষেত্রে বৈশ্বিক পর্যায়ে এ বিধি নিষেধ জারি করা হচ্ছে।

আগামী এক সপ্তাহরে মধ্যে এই বিধিনিষেধ প্রথমে যুক্তরাজ্যে প্রয়োগ করা হবে। এরপর আস্তে আস্তে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এটি কার্যকর হবে। তবে নির্দিষ্ট ভোটার ডেটোবেইস মিলিয়ে প্রচার কার্যক্রম চালানোর পরিবর্তে বয়স, লিঙ্গ ও স্থান অনুযায়ী বিজ্ঞাপন দেখানোর সুযোগ থাকবে।

শুধু তাই নয় বিজ্ঞাপণ যদি প্রতারণামূলক হয় তাহলে বিজ্ঞাপনদাতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবে গুগল। এর আড়ে ১৫ নভেম্বর একটি বিবৃতি প্রকাশের মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটার বিতর্ক এড়াতে তাদের প্লাটফর্ম রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন দেওয়া বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে, যা আগামী ২২ নভেম্বর থেকে কার্যকর হবে। তবে এই ধরনের বিজ্ঞাপন দেওয়ার সুযোগ এখনে রেখেছে ফেসবুক।

গুগল অ্যাডস বিভাগের পণ্য ব্যবস্থাপনা প্রধান স্কট স্পেনসার গতকাল বুধবার এক ব্লগ পোস্টে বলেছেন, যেসব রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে আমরা ব্যবস্থা নিতে পারি, তা সীমিত পর্যায়ে থাকবে। তবে স্পষ্ট নীতিমালা ভঙ্গ করলেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, আগামী সপ্তাহে যুক্তরাজ্যে এই নীতিমালা প্রয়োগ হবে। যেহেতু কিছু নীতিমালা পরিবর্তন হয়েছে, সেহেতু বিশ্বব্যাপী এই নীতিমালা প্রয়োগ করতে কিছুটা সময় লাগবে। আশা করছি আগামী জানুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে বিশ্বব্যাপী এই কার্যক্রম শুরু হবে।

উল্লেখ্য, গুগলের ২০১৮ সালে ১১৬ কোটি বিলিয়ন মার্কিন ডলার আয়ের খুব অল্প পরিমাণ আসে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন থেকে।

রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন প্রচার করবে না গুগল
                                  

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে রাজনৈতিক বার্তা ছড়িয়ে বিভিন্ন দেশের নির্বাচন প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ বেশ পুরনো। এ অভিযোগ থেকে মুক্তি পেতে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন প্রচার নিষিদ্ধে করার পক্ষে নীতিগত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে গুগল। প্রতিষ্ঠানটির ইউটিউব ও গুগল সার্চ প্লাটফর্মে রাজনৈতকি প্রচার করার ক্ষেত্রে বৈশ্বিক পর্যায়ে এ বিধি নিষেধ জারি করা হচ্ছে।

আগামী এক সপ্তাহরে মধ্যে এই বিধিনিষেধ প্রথমে যুক্তরাজ্যে প্রয়োগ করা হবে। এরপর আস্তে আস্তে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এটি কার্যকর হবে। তবে নির্দিষ্ট ভোটার ডেটোবেইস মিলিয়ে প্রচার কার্যক্রম চালানোর পরিবর্তে বয়স, লিঙ্গ ও স্থান অনুযায়ী বিজ্ঞাপন দেখানোর সুযোগ থাকবে।

শুধু তাই নয় বিজ্ঞাপণ যদি প্রতারণামূলক হয় তাহলে বিজ্ঞাপনদাতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবে গুগল। এর আড়ে ১৫ নভেম্বর একটি বিবৃতি প্রকাশের মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটার বিতর্ক এড়াতে তাদের প্লাটফর্ম রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন দেওয়া বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে, যা আগামী ২২ নভেম্বর থেকে কার্যকর হবে। তবে এই ধরনের বিজ্ঞাপন দেওয়ার সুযোগ এখনে রেখেছে ফেসবুক।

গুগল অ্যাডস বিভাগের পণ্য ব্যবস্থাপনা প্রধান স্কট স্পেনসার গতকাল বুধবার এক ব্লগ পোস্টে বলেছেন, যেসব রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে আমরা ব্যবস্থা নিতে পারি, তা সীমিত পর্যায়ে থাকবে। তবে স্পষ্ট নীতিমালা ভঙ্গ করলেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, আগামী সপ্তাহে যুক্তরাজ্যে এই নীতিমালা প্রয়োগ হবে। যেহেতু কিছু নীতিমালা পরিবর্তন হয়েছে, সেহেতু বিশ্বব্যাপী এই নীতিমালা প্রয়োগ করতে কিছুটা সময় লাগবে। আশা করছি আগামী জানুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে বিশ্বব্যাপী এই কার্যক্রম শুরু হবে।

উল্লেখ্য, গুগলের ২০১৮ সালে ১১৬ কোটি বিলিয়ন মার্কিন ডলার আয়ের খুব অল্প পরিমাণ আসে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন থেকে।

জেডটিই বাংলাদেশের আইসিটিসহ বিভিন্ন খাতের উন্নয়নে কাজ করতে চায়
                                  

তথ্য, যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) ও টেলিকম খাতের চীনভিত্তিক বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান জেডটিই বাংলাদেশের আইসিটিসহ বিভিন্ন খাতের উন্নয়নে কাজ করতে চায়।
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলকের সাথে জেডটিই-এর চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার জু জিয়া ইয়া ও সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট জং হুয়াসহ সংশ্লি¬ষ্ট কর্মকর্তারা বৈঠককালে এই আগ্রহের কথা ব্যক্ত করেছেন।
স্পেনের বার্সেলোনায় অনুষ্ঠিত মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে (এমডাব্লিউসি) অংশগ্রহণকারী জেডটিই-এর নেতৃবৃন্দের সাথে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকায় আইসিটি বিভাগের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আজ একথা জানানো হয়েছে।
বৈঠককালে তারা পারস্পরিক স্বার্থসংশি¬ষ্ট বিষয় নিয়ে বিশেষ করে বাংলাদেশের আইসিটি খাতসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন। প্রতিমন্ত্রী আইসিটি খাতে বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ড ও অগ্রগতি সম্পর্কে তাদের অবহিত করেন।
জেডটিই-এর কর্মকর্তাগণ বাংলাদেশের আইসিটি সহ বিভিন্ন খাতের অব্যাহত উন্নয়নের প্রশংসা করেন।
জেডটিই বাংলাদেশের আইসিটি খাতসহ বিভিন্ন খাতের উন্নয়নে অতীতের ন্যায় ভবিষ্যতেও কার্যকরী অবদান রাখার অভিপ্রায় ব্যক্ত করেন।

মোবাইল বৈধ কিনা জানা যাবে এসএমএসে
                                  

মোবাইল বৈধ নাকি অবৈধ, আমদানি নাকি দেশে উৎপাদিত, তা যাচাইয়ে তথ্যভান্ডার চালু করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। ফলে এসএমএস পাঠিয়ে গ্রাহকেরা সহজেই বৈধ বা অবৈধ মোবাইল চিহ্নিত করতে পারবেন।

কেউ যেন অবৈধ সেট কিনে প্রতারিত না হন- সে কারণেই মঙ্গলবার উদ্বোধন করা হয়েছে এই আইএমইআই ডাটাবেজের। ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এই ডাটাসেন্টারের উদ্বোধন করেন।
 
তবে এখনই সব হ্যান্ডসেট ব্যবহারকারীর তথ্য ডাটাবেজে উঠেনি। এর জন্য কিছুদিন সময় লাগবে। শুধুমাত্র গত পহেলা জানুয়ারি থেকে যেসব সেট আমদানি হচ্ছে সেগুলো ডাটাবেজে উঠছে।

এখন থেকে যে কেউ নিজের সেটের তথ্য যাচাইয়ের জন্য KYD লিখে স্পেস দিয়ে ১৫ ডিজিটের আইএমইআই নম্বর লিখে ১৬০০২ নম্বরে পাঠিয়ে দিলে ফিরতি মেসেজে জানানো হবে, তার সেটটি ডেটাবেইজে সংরক্ষিত রয়েছে কি-না। ‘এনওসি অটোমেশন অ্যান্ড আইএমইআই ডেটাবেইজ (এনএআইডি) সেবা পেতে কোনো ধরনের নিবন্ধন প্রয়োজন হবে না। বর্তমানে ব্যবহৃত সব নম্বর এ ডেটাবেইজে এখনই পাওয়া যাবে না। শুধু ২০১৮ সালের ১ জানুয়ারি থেকে বৈধভাবে আমদানিকৃত এবং স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত হ্যান্ডসেটের বেশিরভাগ আইএমইআই নম্বর এই তথ্যভাণ্ডারে সংরক্ষিত আছে। পর্যায়ক্রমে সব নম্বর ডাটাবেজে ঢুকবে।

অনুষ্ঠানে মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘তথ্যপ্রযুক্তির ইতিহাসে এটি মাইলফলক মুহূর্ত। চুরি করে হ্যান্ডসেট আমদানি করায় যে রাজস্ব ক্ষতি হত, তা ঠেকানো প্রযুক্তি ছাড়া সম্ভব নয়, এখন ঠেকানো যাবে। শুধু রাজস্ব নয়, নিরাপত্তাও নিশ্চিত হবে।

জয়পুরহাটে বিজ্ঞান ও শিল্প প্রযুক্তি মেলা শুরু হবে ১৭ জানুয়ারি
                                  

 ’শেখ হাসিনার দর্শন, সব মানুষের উন্নয়ন’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে জয়পুরহাটে বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদ চত্বরে প্রতি বারের ন্যায় এবারও ৩ দিনব্যাপী বিজ্ঞান ও শিল্প -প্রযুক্তি মেলা-২০১৯ আগামী ১৭ জানুয়ারি শুরু হবে।
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জয়পুরহাট-২ আসনের সংসদ সদস্য আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন প্রধান অতিথি হিসেবে তিন দিনব্যাপী আয়োজিত মেলার উদ্বোধন করবেন বলে আশা করা যাচ্ছে।
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদের তত্ত্বাবধানে খনি প্রধান উত্তরবঙ্গের জেলা শহর জয়পুরহাটে গড়ে উঠেছে দেশের প্রথম ও একমাত্র খনি, খনিজ ও ধাতব বিষয়ক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ‘ইনস্টিটিউট অব মাইনিং, মিনারেলজি এন্ড মেটালার্জি ( আইএমএমএম)’। প্রতিষ্ঠানটির প্রধান উদ্দেশ্য দেশের খনি ও খনিজ দ্রব্যের অনুসন্ধান, উত্তোলন পরিকল্পনা, গুণাগুণ বিশ্লেষণ এবং ব্যবহার নিশ্চিত করা।
জয়পুরহাটের খনজনপুরে অবস্থিত ইনস্টিটিউট অব মাইনিং, মিনারেলজি এন্ড মেটালার্জি (আইএমএমএম) ক্যাম্পাসে এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান শিক্ষার প্রতি আগ্রহ সৃষ্টি ও ছাত্র-ছাত্রীদের বিজ্ঞানমনস্ক করে গড়ে তোলার লক্ষ্য নিয়ে আয়োজিত এবারের বিজ্ঞান মেলায় প্রায় শতাধিক উদ্ভাবনী স্টল থাকবে। জয়পুরহাট, বগুড়া ও গাইবান্ধা জেলার অর্ধশতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় সাড়ে ৩শ ক্ষুদে বিজ্ঞানী দেড় শতাধিক গবেষণা প্রকল্প নিয়ে মেলায় অংশগ্রহণ করবেন বলে আশা প্রকাশ করেন আইএমএমএম জয়পুরহাটের পরিচালক ড. মোহাম্মদ নাজিম জামান। ইতোমধ্যে মেলা আয়োজনের সকল প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

পাঁচটি স্মার্টফোনের দাম কমছে
                                  

পাঁচটি স্মার্টফোনের দাম কমছে ট্রানশান বাংলাদেশ তাদের প্রিমিয়াম ব্র্যান্ড টেকনো’র পাঁচটি স্মার্টফোন মডেলের উপর বিশেষ ছাড় দিয়ে বাজারে ছেড়েছে সুপার উইন্টার অফার।

মডেলগুলো হলো ্লক্যামন আই স্কাই টু এর দুই জিবি ও তিন জিবি র্যামের দুইটি ভ্যারিয়েন্ট, ক্যামন আই, পপ ওয়ান এস প্রো এবং পপ ওয়ান এস। স্পেসিফিকেশন অনুযায়ী যে দাম নির্ধারণ করা হয়েছে, তা সত্যিই খুব আকর্ষণীয়। ক্যামন আই স্কাই টু ৩জিবি র্যাম ও ৩২জিবি রমের পূর্বের মূল্য ছিলো ১২,৯৯০ টাকা যা ১৩০০ টাকা কমিয়ে নির্ধারণ করা হয়েছে ১১,৬৯০ টাকা। ব্যাকে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ডুয়েল ক্যামেরা, ফেস আনলক, ফুল ভিউ ডিসপ্লেসহ বর্তমান দাম ক্রেতাদের সাধ্যের মধ্যে সেরাটাই দিচ্ছে। ক্যামন আই সড়াই টু এর ২জিবি র্যাম ও ১৬জিবি রমের ভেরিয়েন্টটি এক হাজার টাকা কমিয়ে ৯,৯৯০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়া ক্যামন আই এর দাম ১৫০০ টাকা কমিয়ে ১১,১৯০ টাকা, পপ ওয়ান এস প্রো এক হাজার কমিয়ে ৮৯৯০ টাকা এবং পপ ওয়ান এস এর মূল্য ৮,৪৯০ টাকা করা হয়েছে।

দেশে তৈরি প্রথম ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনের মোড়ক উন্মোচন
                                  

বাংলাদেশে তৈরি প্রথম ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেছেন, ওয়ালটন বাংলাদেশের গর্ব। বিশ্বের অনেক দেশে ওয়ালটন পৌঁছে গেছে। ওয়ালটন বাংলাদেশের জন্য অসাধারণ এক সাফল্যের উদাহরণ।

গ্রামীণফোনের সঙ্গে এই প্রথম ফ্ল্যাগশিপ (সেরা ও গুরুত্বপূর্ণ পণ্য) সেট নিয়ে বড় ধরনের অফার ঘোষণা করলো ওয়ালটন। গ্রামীণফোন এবং ওয়ালটনের যৌথ উদ্যেগে নেয়া হচ্ছে ফোনটির প্রি-অর্ডার। এই অফারের আওতায় গ্রামীণফোণের গ্রাহকরা এই সেট ব্যবহার করলে বিনামূল্যে ৬ জিবি ইন্টারনেট ডাটা ফ্রি পাবেন। থাকছে আরো কিছু সুবিধা। আর ওয়ালটনের পক্ষ থেকে ক্রেতাদের জন্য ৩ হাজার টাকার গিফট ভাউচারসহ আরো কিছু সুবিধা মিলবে।

গ্রামীণফোনের সঙ্গে যৌথ ঘোষণা উপলক্ষে ওয়ালটন প্রিমো এক্স-ফাইভ নামের ওই সেটের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান হয়ে গেলো গত বুধবার। রাজধানীতে ওয়ালটনের কর্পোরেট অফিসের ওই অনুষ্ঠানে গ্রামীণফোনের ডেপুটি সিইও ইয়াসির আজমান বলেন, দেশের সবখানেই ওয়ালটনের উপস্থিতি দেখেছি। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের কারখানা দেখার সৌভাগ্য হয়েছে। বিশেষ করে গত বছর চীনে কয়েকটি স্মার্টফোন এবং ইলেকট্রনিক্স পণ্য তৈরির কারখানা দেখেছি। কিন্তু গত মাসে ওয়ালটন হাই-টেক পার্ক দেখে আমি অভিভূত। কল্পনায়ও ছিল না দেশের ভেতর আইওটি এবং ইলেকট্রনিক্স পণ্যের এত বৃহৎ কারখানা থাকতে পারে।

ওয়ালটনের কারখানা বিদেশি ওইসব কারখানার চেয়ে অনেক বড় এবং আধুনিক। এটা অনেক বড় অনুপ্রেরণার। ওয়ালটন বাংলাদেশের গর্ব। আমরা গর্বিত যে আমাদের দেশের একটি ব্র্যান্ড এত বৃহৎ আকারে উৎপাদনে গেছে। শুধু দেশের মধ্যেই নয় বরং বিশ্বের অনেক দেশে ওয়ালটন পৌঁছে গেছে। এটা বাংলাদেশের জন্য অসাধারণ এক সাফল্যের উদাহরণ।

ওয়ালটনকে ইলেকট্রনিক্স এবং প্রযুক্তিপণ্য বাজারের রোল মেকার বলে অভিহিত করে ইয়াসির আজমান বলেন, ওয়ালটনের সঙ্গে গ্রামীণফোনের এই ব্যবসায়িক পার্টনারশিপ অব্যাহত থাকবে। স্মার্টফোন বাজারে ওয়ালটনের তৈরি ‘প্রিমো এক্সফাইভ’ হ্যান্ডসেটকে ‘এক্স ফ্যাক্টর’বলে অভিহিত করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে গ্রামীণফেনের হেড অব ডিভাইস সরদার শওকত আলী বলেন, দিনটি বাংলাদেশের জন্য ঐতিহাসিক। কারণ এ ধরনের ফ্ল্যাগশিপ সেট সাধারনত বিদেশি কোম্পানিরা তৈরি করে। কিন্তু ওয়ালটন বাংলাদেশের ব্র্যান্ড। তারা এত উন্নতমানের একটি ফোন নিজেরা তৈরি করেছে। এর ডিজাইন থেকে শুরু করে সব কাজ নিজেরা করেছে এবং বিজয়ের মাসে বাজারে আনছে।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন গ্রুপের পরিচালক এসএম আশরাফুল আলম, এসএম মাহবুবুল আলম এবং তাহমিনা আফরোজ তান্না, ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এসএম মঞ্জুরুল আলম এবং ওয়ালটন মোবাইল ফোন বিভাগের প্রধান এসএম রেজওয়ান আলম।

৬ জিবি র‌্যামের ওয়ালটন প্রিমো এক্সফাইভ স্মার্টফোনটির দাম রাখা হয়েছে মাত্র ২৪ হাজার ৯৯৯ টাকা। দেশের সব ওয়ালটন প্লাজা ও ব্র্যান্ড আউটলেট এবং গ্রামীণফোনের অনলাইন শপ, ওয়াও বক্স এবং মাই জিপি থেকে মাত্র ২ হাজার ৫০০ টাকায় ফোনটির আগাম ফরমাশ দেয়া যাবে। প্রি-অর্ডার দেয়া ক্রেতারা স্মার্টফোনের সঙ্গে পাবেন ৩ হাজার টাকার গিফট ভাউচার। যা দিয়ে ওয়ালটন বিক্রয়কেন্দ্র থেকে পছন্দের পণ্য কিনতে পারবেন। নগদ, ইএমআই এবং কিস্তিতে ফোন কেনার ক্ষেত্রেও এই অফার প্রযোজ্য।

গ্রামীণফোন ব্যবহারকারীরা ওয়ালটন প্রিমো এক্সফাইভ স্মার্টফোনে তাদের সিমকার্ড ইনসার্ট করার সঙ্গে সঙ্গে ৬ জিবি ইন্টারনেট ফ্রি পাবেন। এছাড়া ফোন কেনার পর থেকে পরবর্তী ৩ মাসে ৩০ বার পর্যন্ত মাত্র ৯৯ টাকায় ৪ জিবি করে ইন্টারনেট ডাটা নিতে পারবেন।

এই ফোনে ৩০ দিনের ইনস্ট্যান্ট রিপ্লেসমেন্ট ছাড়াও যারা প্রি-অর্ডাকারী ক্রেতারা পাবেন দেড় বছরের বিশেষ ওয়ারেন্টি। এ সময়ের মধ্যে ফোনটিতে কোনো সমস্যা হলে গ্রাহকের কাছ থেকে ওয়ালটনের প্রতিনিধি গিয়ে ফোনটি নিয়ে আসবেন এবং ক্রুটিমুক্ত করে বিনামূল্যে পৌঁছে দেবেন।

বাংলাদেশের হাই-টেক পার্কে বিনিয়োগে আগ্রহী চীন
                                  

বাংলাদেশের হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিতে বিনিয়োগ করতে চাইনিজ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান আগ্রহ দেখিয়েছে। আজ বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সভাকক্ষে আনুষ্ঠানিকভাবে স্যানডং প্রদেশের (Shandong Province) দিঝউ সিটির (Dezhou City) ২০টি কোম্পানির প্রায় ৩৫ জন প্রতিনিধি এ বিষয়ে মতবিনিময় করেন।

 

বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (সচিব) হোসনে আরা বেগম এনডিসি এর সভাপতিত্বে উক্ত আলোচনা সভায় বাংলাদেশে সরাসরি বিনিয়োগের ক্ষেত্রসমূহ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। ব্যবস্থাপনা পরিচালক বাংলাদেশের হাই-টেক ইন্ডাস্টিতে বিনিয়োগের অপার সম্ভাবনার বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। বাংলাদেশে সরাসরি বৈদেশিক বিনিয়োগ যে ক্রমবর্ধমান হারে বেড়ে চলেছে তার পরিসংখ্যানভিত্তিক উপস্থাপনায় ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, বাংলাদেশে এখন বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ বিরাজ করছে। বৈদেশিক সরাসরি বিনিয়োগ (এফডিআই) ক্রমবর্ধমানভাবে বেড়ে চলেছে। চীনা কোম্পানিগুলো এই সুযোগ কাজে লাগাতে পারে। বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (সচিব) হোসনে আরা বেগম এনডিসি জানান, ইতোমধ্যে কালিয়াকৈরে উত্পাদিত পণ্য বিদেশে রপ্তানি শুরু হয়েছে। শীঘ্রই সেখানে ল্যাপটপ এসেম্বলিং শুরু করবে। এখানে নামে মাত্র মূল্যে জমি লিজ দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বিভিন্ন রকম প্রণোদনা সুবিধা দেওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

অলোচনা সভায় বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ কর্তৃক বাস্তবায়িতব্য সিলেট ইলেক্ট্রনিক সিটি প্রকল্পের পরিচালক ব্যরিস্টার মো. গোলাম সরওয়ার ভূঁইয়া বলেন, সিলেটে বাস্তবায়নাধীন প্রকল্পেও বিনিয়োগের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। চীনা প্রতিষ্ঠানগুলো এখানে বিনিয়োগ করলে সব ধরনের সহযোগিতা করতে বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ প্রস্তুত। চীনা কোম্পানিগুলোর প্রতিনিধিরা বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধির অংশীদার হতে আগ্রহ ব্যক্ত করেন। তারা বলেন চীন এখন বিশ্বের বড় অর্থনৈতিক শক্তি। বাংলাদেশের উন্নয়নের সহযাত্রী হতে তারা আন্তরিকভাবে কাজ করতে ইচ্ছুক। বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের পরিচালক ড.খন্দকার আজিজুল ইসলাম বলেন, ‘বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ এখন অনলাইন ওয়ানস্টপ সার্ভিস চালু করেছে। কাজেই চীনা কোম্পানীগুলো বিনিয়োগ করতে চাইলে খুব সহজে এবং দ্রুত সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পারে। বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ সব ধরনের সহযোগীতা করতে সদা প্রস্তুত।’ তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক

হোয়াটসঅ্যাপে বদলাচ্ছে মেসেজ ডিলিটের নিয়ম, জেনে নিন
                                  

ভুল করে হোয়াটসঅ্যাপের অন্য কাউকে মেসেজ করে ফেলছেন। ‘ডিলিট ফর এভরিওয়ান’ অপশন দিয়ে মেসেজ ডিলিটও করে দিলেন। কিন্তু তাতেও রক্ষে নেই। ৭ মিনিটের বেশি হয়ে গেলে তো মেসেজ ডিলিট করা যাবে না! তবে এবার সেই পরিস্থিতি বদলাতে চলেছে। সময়সীমা বাড়ছে মেসেজ ডিলিট করার ক্ষেত্রে।

একটি টেকনোলজি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, হোয়াটসঅ্যাপের ‘ডিলিট ফর এভরিওয়ান’ ফিচারটি গত বছর নভেম্বর মাসে প্রকাশ্যে আসে। লঞ্চ হওয়ার পরেই জনপ্রিয় হয়ে ওঠে এই ফিচারটি। কাউকে ভুল করে মেসেজ পাঠালে, প্রেরক চাইলে ৭ মিনিটের মধ্যে মেসেজ ডিলিট করতে পারবেন। কিন্তু এই সময় খুবই অল্প বলে অভিযোগ জানাচ্ছিলেন গ্রাহকরা। এবার গ্রাহকদের কথা মাথায় রেখেই সেই ফিচারে বদল আনল হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ।

ওই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, এবার থেকে সেই সময়সীমা বাড়িয়ে ১ ঘণ্টা ৮ মিনিট ১৬ সেকেন্ড করে দেওয়া হয়েছে। ফলে মেসেজ পাঠানোর পরেও ডিলিট করতে হাতে ঘণ্টা খানেক সময় পাওয়া যাবে।

আরও পড়ুন: কিশোরীদেরকে অর্ধউলঙ্গ পুরুষদের বন্ধু হওয়ার পরামর্শ দিচ্ছে ফেসবুক

প্রসঙ্গত, এই সপ্তাহেই ‘ফরওয়ার্ড মেসেজিং’ ফিচার এনেছে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ। চ্যাটের মেসেজ যদি অন্য কাউকে ফরওয়ার্ড করা হয় তাহলে এই ফিচারটির মাধ্যমে সহজেই তা বোঝা যাবে।

তবে এখনই ‘ডিলিট ফর এভরিওয়ান’ ফিচারের নতুন সুবিধা পাবেন না সবাই। জানা গিয়েছে, আপাতত কেবল হোয়াটসঅ্যাপ অ্যান্ড্রয়েড বিটা ভার্সনেই এই সুবিধা পাওয়া যাবে।

যে কারণে ফোনের চার্জ দ্রুত ফুরিয়ে যাচ্ছে
                                  

অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমযুক্ত ফোন বা স্মার্টফোনের ব্যাটারির চার্জ দ্রুত শেষ হয়ে যায়। পুরো চার্জ দিলেও তা একদিন পর্যন্ত টিকে না। কি কারণ তা অনেকেই খুঁজে পান না। যদিও মোবাইল ফোনে ইন্টারনেট ব্যবহারের কারণে এমনটি হয়ে থাকে বলে মনে করা হয়। 

কারণ ইন্টারনেটের মাধ্যমে মোবাইল ফোন ব্যবহার করে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঢুঁ মারেন এখন অনেকেই। ফলে চার্জ দ্রুত ফোরানোটাই স্বাভাবিক। 

বিশেষজ্ঞরাও এমন মত দিয়েছেন। তাদের মত,স্মার্টফোন ব্যবহারকারীরা তাদের ফোনে যেসব অ্যাপ সব চেয়ে বেশি ব্যবহার করেন তা-ই মূলত স্মার্টফোনের ব্যাটারির চার্জ বেশি খরচ করে। জনপ্রিয় সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট ফেসবুক নাকি অ্যান্ড্রয়েড ফোনের চার্জ সব থেকে দ্রুত শেষ করে দেয়।

যেসব কারণে হ্যাক হয় ফেসবুকের পাসওয়ার্ড
                                  

তথ্য-প্রযুক্তির উন্নয়নের ফলে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলো। আর সেই তালিকায় প্রথমেই আছে ফেসবুক। তবে অনেকেই ফেসবুক একাউন্টের পাসওয়ার্ড হ্যাক হওয়ার অভিজ্ঞতার মধ্যে পড়েছেন। বিভিন্ন কারণেই ফেসবুক আইডির পাসওয়ার্ড চলে যেতে পারে অন্যের নিয়ন্ত্রণে। তবে আর দেরি না তরে চলুন জেনে নেই ফেসবুক পাসওয়ার্ড হ্যাক হওয়ার কিছু কারণ সম্পর্কে- 

১. একাউন্ট ফিশিং
এই প্রক্রিয়ায় হ্যাকার আপনাকে বিভিন্নভাবে লিংক পাঠাবে। হতে পারে ফেসবুক ম্যাসেজে কিংবা আপনার ইমেইলে। অবিকল ফেসবুক থেকে আসা নোটিফিকেশনের মতই লিংক আসে। ব্যবহারকারীরা বুঝতেই পারেন না আসলে এসব ফেসবুকের না। একে বলা হয় ফিশার ওয়েব। অবিকল দেখতে একটি ওয়েবসাইটের মতো হলেও আসলে তা নয়। ফলে যদি ফেসবুক ভেবে লগ ইন করেন তাহলেই আইডি খোয়া যাবে আপনার।

২. ওয়েবসাইটের শেয়ার বাটন
কিছু ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট রয়েছে যেখানে শেয়ার বাটন ক্লিক করা ঝুঁকিপূর্ণ। কারণ থার্ড পার্টি ওয়েবসাইটে ছবি শেয়ার করতে সেখানে যে অপশন থাকে সেখানে ক্লিক করলেও অনেক সময় আপনার একাউন্ট ও পাসওয়ার্ড হ্যাক হতে পারে।

৩. ফেইক বন্ধুত্ব
অনেক সময় দেখা যায় হ্যাকার ছদ্মবেশে আপনার সঙ্গে খুব ভালো সম্পর্ক গড়ে এরা। আপনার বিষয়ে বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করতে থাকে। এক পর্যায়ে আপনাকে ইনবক্সে লিংক পাঠায়। এসব লিংকে না বুঝে ক্লিক করলেই আপনার গোপন পাসওয়ার্ড এবং ইমেইল হ্যাকারের নিয়ন্ত্রণে চলে যাবে।

৪. সাইবার ক্যাফেতে লগ ইন
অনেকে শুধু মোবাইলেই ফেসবুক চালাতে অভ্যস্ত। মাঝেমধ্যে কম্পিউটারে বসেন কেবল বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করতে। এসব ক্ষেত্রে যারা পাবলিক কম্পিউটার যেমন- সাইবার ক্যাফেতে যান, অনেক সময় তারা একাউন্ট লগ আউট করতে ভুলে যান। অথবা অনেকেই লগ ইন করার সময়ে খেয়াল করেন না রিমেম্বার পাসওয়ার্ড দেয়া রয়েছে। এভাবে আপনার অজান্তে অন্য কেউ আপনার একাউন্ট এ প্রবেশ করে হ্যাক করে নিতে পারে।

৫. ফেসবুক অ্যাপ
ফেসবুকে নানা অ্যাপ রয়েছে। এগুলো ব্যবহারের ক্ষেত্রে সব সময় সাবধান থাকা উচিত। অনেকেই এসব অ্যাপকে নিজের ইমেল একাউন্ট পাসওয়ার্ডসহ নানান তথ্য দিয়ে দেন। যা অনেক ক্ষেত্রেই এরা বিভিন্ন বিজ্ঞাপন সংস্থার কাছে বিক্রি করে।  এভাবে ফেসবুক অ্যাপ ব্যবহারের মাধ্যমে নিজের একাউন্ট হারাতে পারেন।

সব রেকর্ড ভেঙে সৌর বিজয়ের কাছাকাছি নাসার মহাকাশযান
                                  

সূর্যের খুব কাছাকাছি পৌঁছে গিয়ে নাসার মহাকাশযান সোলার প্রোব। আজ পর্যন্ত মানুষের পাঠানো কোনও যান সূর্যের এতটা কাছে যেতে পারেনি। এখানেই শেষ নয়। ক্রমে সোলার প্রোব সূর্যের আরও কাছে এগিয়ে যাবে বলে জানিয়েছে নাসা।

এক ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, দূরত্বটা অনেক। দেড়শো লক্ষ মাইল। কিন্তু সূর্যের কাছাকাছি পৌঁছনোর হিসেবে সত্যিই হিসেবটা চমকে দেওয়ার মতোই। এতদিন পর্যন্ত সূর্যের সবচেয়ে কাছাকাছি যাওয়ার রেকর্ড ছিল হেলিয়োস বি নামে এক মহাকাশযানের। ১৯৭৬ সালের সেই রেকর্ড গত ২৯ অক্টোবর ভেঙে দিয়েছে সোলার প্রোব।

স্বাভাবিক ভাবেই সূর্যের এতটা কাছে পৌঁছে যাওয়ার দরুণ সোলার প্রোবের সূর্যের দিকে সম্মুখীন যে তাপরোধী অংশ, সেখানকার তাপমাত্রা দাঁড়িয়েছে ৮২০ ডিগ্রি ফারেনহাইট। আরও এগোলে এই তাপমাত্রা যে বাড়বে তা বলাই বাহুল্য। নাসা জানিয়েছে, ক্রমে এই তাপমাত্রা আড়াই হাজার ফারেনহাইটেও পৌঁছতে পারে!

ওই প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, প্রতি ঘণ্টায় ২ লক্ষ ১৩ হাজার মাইল প্রতি ঘণ্টা গতিবেগ নিয়ে চলছে সোলার প্রোব। এটাও কোনও মহাকাশযানের গতির ক্ষেত্রে রেকর্ড।

এই মুহূর্তে পৃথিবী থেকে কোনও রকম নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে না যানটিকে। স্বয়ংক্রিয় ওই যান সূর্য সম্পর্কে অনেক অজানা তথ্য জানাবে। আপাতত সেই সব তথ্য জানতেই মুখিয়ে রয়েছেন বিজ্ঞানীরা। মহাকাশ যাত্রার ইতিহাসে নাসার এই পদক্ষেপ নিঃসন্দেহে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা।

অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ডিলিট হওয়া ডেটা ফিরে পাবেন যেভাবে
                                  

প্রায়ই আমরা ভুলবশত মোবাইল থেকে বিভিন্ন ছবি, ভিডিও বা অডিও ফাইল ডিলিট করে ফেলি। বিশেষ করে ছবি। অনেক সময় ভুলবশত মেমোরি কার্ড ফরম্যাট করে ফেলি। এতে স্মার্টফোন থেকে হারিয়ে যায় অসংখ্য গুরুত্বপূর্ণ তথ্যসহ প্রয়োজনীয় অনেক ছবি। 

তবে আর দেরি না করে চলুন জেনে নেই অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ডিলিট হয়ে যাওয়া ডেটা রিকভারির পদ্ধতি সম্পর্কে। প্রথমেই জেনে নেই মেমোরি কার্ড থেকে ডিলেট হওয়া ফাইল রিকভার করার নিয়ম।

গুগল প্লে-স্টোর থেকে পছন্দমতো ‍‘ফাইল রিকভারী সফটওয়্যার’ ডাউনলোড করে নিন। এর মধ্যে ‘রেকুভা’ (Recuva) সফটওয়্যার বেশ পরিচিত।

প্রয়োজনীয় ফাইলগুলো আগে অন্য কোথাও কপি বা ব্যাক‌আপ করে রাখুন। যাতে রিকভারের সময় ভুলবশত সব ফাইল ডিলেট হয়ে না যায়।

ব্যাকআপ নেওয়া হয়ে গেলে (Recuva) সফটওয়্যার ওপেন করে মেনু থেকে SD Card সিলেক্ট করুন।

এখানে ডিলেট হওয়া ফাইলগুলোর একটি তালিকা আসবে। এখান থেকে প্রয়োজনীয় ফাইল বা ছবিগুলো রিকভার করা শুরু করুন।

এ বার জেনে নেওয়া যাক ফোন মেমোরি থেকে ডিলেট হওয়া ফাইল রিকভার করার পদ্ধতি। ফোন মেমোরি থেকে ডিলেট হওয়া ফাইল রিকভার করার নিয়ম:

অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ইন্টারনাল মেমোরি বা ফোন মেমোরি থেকে ছবি বা ভিডিও ডিলেট হলে তা রিকভার করা বেশ সমস্যার। এ ক্ষেত্রে আপনাকে কিছুটা হলেও সাহায্য করতে পারে ‘ডিস্ক ডিগার অ্যাপ’ (Disk Digger App)।

• শুরুতেই গুগল প্লে-স্টোর থেকে Disk Digger App ইনস্টল করে নিন।

• অ্যাপসটি ব্যবহার করার আগে একটা জরুরি বিষয় অবশ্যই মাথায় রাখুন, এটা শুধুমাত্র রুটেড অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের ক্ষেত্রেই কাজ করবে।

• অ্যান্ড্রয়েড ফোন রুট করার নিয়ম বা পদ্ধতি গুগল থেকে জেনে নিতে পারেন।

• যাদের ফোন ইতিমধ্যেই রুট করা আছে, তারা প্রথমেই ডিলেট হওয়া ফোল্ডারগুলো বেছে নিন।

• ফাইল টাইপ (যেমন, JPG, PNG, 3gp বা Mp4) সিলেক্ট করুন।

• ফাইল টাইপ সিলেক্ট করা হয়ে গেলে সেভ বাটনে ক্লিক করা ফাইলগুলো তৎক্ষণাত রিকভার করে ফেলতে পারবেন।

উল্লেখ্য, অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলে যখন কোনও ফাইল ডিলেট হয়, তখন সিস্টেমে শুধু তথ্যগুলো মুছে যায়। যতক্ষণ না পর্যন্ত ওই ফাইল স্পেসে অন্যকিছু ওভাররাইট হচ্ছে, ততক্ষণ পর্যন্ত তা পুনরুদ্ধার করার সম্ভাবনা থাকে। তাই ডিলেট হওয়া ফাইল উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত ফোনে বড় আকারের ফাইল সেভ করা ও কোন প্রকার সিস্টেম আপডেট নেওয়া থেকে বিরত থাকার চেষ্টা করুন।

ফেসবুক অ্যাকাউন্ট নিরাপদ রাখবেন যেভাবে
                                  
য় পাঁচ কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য হাতিয়ে নিয়েছে সাইবার দুর্বৃত্তরা। শুক্রবার ফেসবুক কর্তৃপক্ষ এই অভিযোগ স্বীকার করে নিয়েছে। পরে যাচাই করে এসব অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তায় ত্রুটি দেখতে পায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের জনপ্রিয় এই প্রতিষ্ঠানটি।
 
ফেসবুকের নিরাপত্তা প্রধান গেই রোসেন জানিয়েছেন, হাতিয়ে নেওয়া তথ্য ব্যবহার করে দুর্বৃত্তরা সংশ্লিষ্টদের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে ঢুকতে পারত। তবে ২৮ সেপ্টেম্বর ওইসব ত্রুটি তারা ঠিক করেছেন। 
 
অ্যাকাউন্ট হ্যাক থেকে থেকে বাঁচাতে কিছু পদক্ষেপের কথা জানিয়েছেন ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ। কেউ যদি তার অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তা নিয়ে আশঙ্কায় থাকেন তবে তাদের জন্য তিনটি পদক্ষেপ নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।
 
লগইন ডিভাইস চেক করুন:
আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টে কেউ অনুপ্রবেশ করেছে কি না তা বোঝার সবচেয়ে ভালো উপায় হচ্ছে লগইন ডিভাইসগুলো চেক করা। এর মাধ্যমে জানা যাবে কোন কোন মোবাইল, ট্যাব, পিসি, অথবা ব্রাউজার থেকে অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করা হয়েছে। আপনার চেনার বাইরে কোনো ডিভাইস থাকলে বুঝবেন অ্যাকাউন্টটি হ্যাক হয়েছিল। এজন্য সেই ডিভাইসটি সিলেক্ট করে অ্যাকাউন্ট লগআউট করে দিন অথবা রিমুভ বাটনে ক্লিক করে বাতিল করে দিন। 
 
যেভাবে লগইন ডিভাইস চেক করবেন: 
আপনার অ্যাকাউন্টের সেটিংস অপশনে যান। এরপর ‘সিকিউরিটি অ্যান্ড লগইন’ অপশনে ক্লিক করুন। দেখবেন যেসব ডিভাইস থেকে আপনি ফেসবুকে প্রবেশ করেছিলেন সেগুলোর তালিকা আসবে। দিন-তারিখসহ অনেক ক্ষেত্রে লোকেশনও দেখাবে। অপরিচিত কোনো ডিভাইস যদি দেখতে পান তা ‘রিমুভ’ বা লগআউট করে দিন।
 
‘টু ফ্যাক্টর অথেন্টিকেশন’ চালু রাখুন: 
ফেসবুকে প্রবেশের জন্য দুই স্তরের তথ্য যাচাইয়ের পদ্ধতি আছে। যাতে অ্যাকাউন্টে অন্য কারো প্রবেশ করা কঠিন হয়ে পড়ে। ‘টু ফ্যাক্টর অথেন্টিকেশন’-এর জন্য শুধু পাসওয়ার্ড দিয়ে ফেসবুকে প্রবেশ করা যাবে না। 
 
পাসওয়ার্ড দেওয়ার পর আপনার মোবাইলে সঙ্গে সঙ্গে ম্যাসেজের মাধ্যমে একটি কোড পাঠাবে। ওই কোডটি দিতে পারলেই কেবল ফেসবুকে প্রবেশ করা যাবে। আর মোবাইল যেহেতু আপনার কাছে থাকবে তাই এই কোডটি অন্য কারো কাছে যাওয়া সম্ভব নয়। ফলে আপনার অ্যাকাউন্টে অনুপ্রবেশ সুযোগ থাকছে না।
 
পাসওয়ার্ড বদলে নিতে পারেন:
কেউ যদি দুর্বল পাসওয়ার্ড দিয়ে রাখেন অথবা দেখেন যে আপনার অ্যাকাউন্টে অপরিচিত কোনো ডিভাইস থেকে প্রবেশ করা হয়েছে তাহলে পাসওয়ার্ডটি বদলে নিতে পারেন। এজন্য কঠিন পাসওয়ার্ড দিয়ে দিন। পাসওয়ার্ড জটিল করতে সংখ্যা এবং ছোট হাতের বড় হাতের অক্ষর মিলিয়ে পাসওয়ার্ডটি দিতে পারেন। সুত্র: ফেসবুক নিউজরুম
স্মার্টফোন ভাইরাস মুক্ত রাখবেন যেভাবে
                                  
পিসিকে ভাইরাস বা ম্যালওয়্যার থেকে মুক্ত রাখার চ্যালেঞ্জের সাথে আধুনিক সময়ের নতুন চ্যালেঞ্জ স্মার্টফোনকে ম্যালওয়্যার থেকে মুক্ত রাখা। বিশেষ করে পিসির পাশাপাশি এখন সাইবার অপরাধীদের দৃষ্টি স্মার্টফোনের দিকে একটু বেশিই—এমনটিই বলছেন প্রযুক্তি বিশ্লেষকরা। তাই স্মার্টফোনকে ম্যালওয়্যার থেকে মুক্ত রাখতে হিমশিম খেয়ে যাচ্ছেন সকলেই। সহজ তিনটি অভ্যাস এক্ষেত্রে আপনার সহায়ক হতে পারে। লিখেছেন উম্মে হাবিবা 
 
স্মার্টফোনের ব্যবহার যে হারে দিন দিন বাড়ছে, সেই হারে বাড়ছে স্মার্টফোনের জন্য ক্ষতিকর বিভিন্ন ম্যালওয়্যারের পরিমাণ। স্মার্টফোনগুলোর বিভিন্ন অ্যাপসের ছদ্মবেশেই মূলত এসব ম্যালওয়্যার হাজির হয়ে থাকে। বর্তমানে ৫০ লাখেরও বেশি এমন ম্যালওয়্যার অ্যাপস রয়েছে বলে জানাচ্ছে প্রযুক্তি নিরাপত্তা গবেষণা প্রতিষ্ঠান ম্যাকআফি। আরেক নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান সিম্যানটেক জানাচ্ছে, মোবাইল অ্যাপসের ছয় ভাগের এক ভাগই ম্যালওয়্যার। এমন পরিস্থিতিতে যে কেউই চমকপ্রদ কোনো অ্যাপস নিজের মোবাইলে ইন্সটল করে নিলে সেটি যে ম্যালওয়্যার নয়, তার নিশ্চয়তা দেওয়া মুশকিল। বিশেষ করে ম্যালওয়্যারগুলো আবার একটু বেশি চমকপ্রদ অ্যাপসের ছদ্মবেশ ধরতেই বেশি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে।
 
সাধারণ স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের আতংকিত করার মতো এই চিত্রের বিপরীতে ম্যালওয়্যার থেকে স্মার্টফোনকে নিরাপদে রাখার প্রচেষ্টাও আশাবাদী হওয়ার মতোই। স্মার্টফোন অপারেটিং সিস্টেম নির্মাতা শীর্ষ দুই কোম্পানি অ্যাপল (আইওএস) এবং গুগল (অ্যান্ড্রয়েড) বলছে, তাদের নিজস্ব পদ্ধতিতে স্ক্যান করা অ্যাপসগুলো নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কোনো কারণ নেই। বরং তাদের স্ক্যান করা অ্যাপসগুলো নির্ভরতার সাথেই ইনস্টল করে নিতে পারেন ব্যবহারকারীরা। প্রযুক্তি নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠানগুলোও একই কথাই বলছেন। থার্ড-পার্টি অ্যাপস ব্যবহারে বাড়তি সতর্কতা এক্ষেত্রে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীকে অনেকটাই সহায়তা করবে বলে মন্তব্য তাদের। তাদের মন্তব্য, পরামর্শের ভিত্তিতেই ম্যালওয়্যার থেকে স্মার্টফোনকে মুক্ত রাখার জন্য সহজ তিনটি উপায় পাঠকদের উদ্দেশ্যে তুলে ধরা হলো এই লেখার মাধ্যমে।
 
অফিশিয়াল অ্যাপ স্টোর ব্যবহার করুন
 
অ্যাপস ডাউনলোড করতে গিয়ে যাতে ম্যালওয়্যার ডাউনলোড করে না বসেন, তা নিশ্চিত করার সবচেয়ে ভালো পদ্ধতি হলো অফিশিয়াল অ্যাপ স্টোর থেকে অ্যাপস ডাউনলোড করা। গুগলের গুগল প্লেস্টোর কিংবা অ্যাপলের অ্যাপ স্টোরই এক্ষেত্রে হতে পারে সহায়। এই দুই অ্যাপ স্টোরে থাকা অ্যাপসগুলোকে নিয়মিত বিরতিতে স্ক্যান করে থাকে অ্যাপল এবং গুগল। যেকোনো সময় কোনো অ্যাপে সন্দেহজনক গতিবিধি দেখা গেলে সেটিকে সরিয়েও ফেলা হয় দ্রুততম সময়ের মধ্যে। এসব অফিশিয়াল অ্যাপ স্টোরের বদলে অন্য কোনো অ্যাপ স্টোর থেকে অ্যাপস ইনস্টল করতে গেলে তা পূর্ণাঙ্গ নিরাপত্তার নিশ্চয়তা প্রদান করবে না। অনেক অ্যাপ স্টোরেই গুগল প্লেস্টোর বা অ্যাপল অ্যাপ স্টোরের মতো শক্তিশালী স্ক্যানিং ব্যবস্থাই নেই। সাইবার অপরাধীরা থার্ড-পার্টি অ্যাপ স্টোরের এসব দুর্বলতা কাজে লাগিয়েই অ্যাপসের মধ্যে ম্যালওয়্যার উপাদানগুলো প্রবেশ করিয়ে থাকে। কাজেই অ্যাপস ডাউনলোড করার ক্ষেত্রে সাবধানতা অবলম্বন করতে পারলে তা ম্যালওয়্যার থেকে স্মার্টফোনকে মুক্ত রাখতে যথেষ্টই সহায়তা করবে।
 
জেলব্রেক করবেন না
 
প্রতিটি স্মার্টফোন অপারেটিং সিস্টেমেই নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে নির্মাতাদের পক্ষ থেকে নানা ধরনের ফিচার বিল্ট-ইন হিসেবে দেওয়া থাকে। এই নিরাপত্তা বলয়ের কারণে অবিশ্বস্ত বিভিন্ন সূত্র থেকে প্রাপ্ত অ্যাপস ইনস্টল কিংবা নিরাপত্তার সাথে সংশ্লিষ্ট অনেক কাজই করা সম্ভব হয় না। ফলে অনেকেই স্মার্টফোনের এই বিল্ট-ইন নিরাপত্তা বলয় ভেঙে ফোনকে উন্মুক্ত করার চেষ্টা করে থাকেন। এই প্রক্রিয়াটি জেলব্রেকিং নামে পরিচিত। কোনো ফোনকে জেলব্রেক করা হলেও ওই ফোনের ডাটা বা অন্য বিষয়গুলোর নিরাপত্তার জন্য ব্যবহারকারীকে সম্পূর্ণরূপে নিজের ওপর নির্ভর করতে হয়। সেক্ষেত্রে এই বিষয়ক কারিগরি জ্ঞানে সমৃদ্ধ না হলেও নিরাপত্তা নিয়ে শংকা থেকেই যাবে। এই সুযোগে অনেক ম্যালওয়্যার আপনার অগোচরেই প্রবেশ করতে পারে স্মার্টফোনে। তাই জেলব্রেক করার আগে আরেকবার ভেবে নিন—নিরাপত্তার সাথে আপোষ করতে রাজি রয়েছেন কি-না। নিরাপত্তাকেই যদি সর্বাধিক গুরুত্ব দিতে চান, সেক্ষেত্রে জেলব্রেক না করাটাই সমীচীন হবে।
 
আপডেট থাকুন
 
স্মার্টফোনের অপারেটিং সিস্টেম থেকে শুরু করে ইনস্টল করা অ্যাপস—সবকিছুকেই নিয়মিত আপডেট রাখার চেষ্টা করুন। ম্যালওয়্যার নিয়ে যারা কাজ করে থাকে, তারা সবসময়ই চেষ্টা করে অপারেটিং সিস্টেম বা বিদ্যমান কোনো অ্যাপসের মধ্যে ফাঁক-ফোকড় বের করার। আর সেটা করতে পারলেই ম্যালওয়্যারকে ছড়িয়ে দেওয়া তাদের জন্য সহজ হয়ে যায়। সেটা তারা নিয়মিতই করে থাকে। সাইবার অপরাধীদের এই প্রচেষ্টাকে প্রতিহত করতে অবশ্য বসে থাকে না অপারেটিং সিস্টেম বা অ্যাপ নির্মাতারা। তারাও যেকোনো সময় অপারেটিং সিস্টেম বা অ্যাপে কোনো ধরনের দুর্বলতা বা ত্রুটি দেখলে সাথে সাথে সেটার সমাধান বের করার সর্বাত্মক চেষ্টা করে। নতুন নতুন আপডেট বা প্যাচের মাধ্যমে হাজির হয় যেকোনো ত্রুটির সমাধান। আবার হ্যাকারদের আক্রমণে কোনো অ্যাপ বা অপারেটিং সিস্টেমে ঝুঁকি তৈরি হলে তারও সমাধান নিয়ে হাজির হয় আপডেট। এগুলো তাই নিয়মিত ইনস্টল করে নিতে হবে। অপারেটিং সিস্টেম বা অ্যাপকে আপডেট রাখতে পারলে তাই আপনার স্মার্টফোনকে ম্যালওয়্যার থেকে মুক্ত রাখার পথে অনেকটাই এগিয়ে যেতে পারবেন। এছাড়াও নতুন আপডেট থেকে উপভোগ করতে পারবেন নতুন নতন ফিচার ও ব্যবহার সুবিধা।
রোবটের কারণে বিশ্বে কাজ হারাবে সাড়ে ৭ কোটি মানুষ
                                  
রোবটের কারণে ২০২২ সাল নাগাদ বিশ্বে কাজ হারাবে সাড়ে ৭ কোটি মানুষ। কিন্তু এ নিয়ে আতংকিত হওয়ার কিছু নেই। কারণ ঐ একই সময়ে নতুন প্রযুক্তির কারণে তৈরি হবে ১৩ কোটি ৩০ লাখ নতুন কাজ। বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরাম তাদের এক রিপোর্টে এই ভবিষ্যদ্বাণী করছে।
 
রিপোর্টে বলা আরো বলা হয়েছে, প্রযুক্তির উন্নয়নের ফলে মানুষের সময় বেঁচে যাবে অনেক, আর সেটা তাদের অন্য কাজ করার সুযোগ করে দেবে। কিন্তু সমালোচকরা হুঁশিয়ারি দিচ্ছেন, যেসব কাজ চলে যাবে, তার জায়গা যে নতুন চাকুরি তৈরি হবে এর কোন নিশ্চয়তা নেই।
 
‘ওয়ার্ল্ড ইকনমিক ফোরাম’ হচ্ছে সুইজারল্যান্ডভিত্তিক একটি নীতি গবেষণা কেন্দ্র। প্রতিবছর ডাভোসে তারা একটি সম্মেলনের আয়োজন করে যেখানে সারা বিশ্বের বিভিন্ন ক্ষেত্রের নামকরা লোকদের জড়ো করা হয়। তাদের রিপোর্টটিতে বলা হচ্ছে, রোবট এবং এলগরিদমের কারণে এখনকার বিভিন্ন কাজের উৎপাদনশীলতা অনেকগুণ বেড়ে যাবে। কিন্তু এর ফলে নতুন কাজ তৈরিরও সুযোগ হবে।
 
ডাটা এনালিস্ট, সফটওয়্যার ডেভেলপার, সোশ্যাল মিডিয়া স্পেশালিস্ট- এধরণের কাজ প্রচুর বাড়বে। তবে শিক্ষক বা কাস্টমার সার্ভিস কর্মীর মতো কাজ, যাতে কিনা অনেক সুস্পষ্ট মানবিক গুণাবলীর দরকার হয়, সেরকম কাজও অনেক তৈরি হবে।
 
তবে নতুন কাজ তৈরির প্রক্রিয়াটা যে সহজ হবে না, এই পরিবর্তনের পথে যে নানা রকম ঘাত-প্রতিঘাত আসবে, সেটা মনে করিয়ে দেয়া হচ্ছে রিপোর্টটিতে। একাউন্টিং প্রতিষ্ঠান, কারখানা থেকে শুরু করে পোস্ট অফিস, ক্যাশিয়ারের কাজ—রোবট এসে দখল করে নেবে এসব কাজ। এই বিরাট পরিবর্তনের মুখে কর্মীদের নতুন কাজের প্রশিক্ষণ নিতে হবে, নতুন দক্ষতা অর্জন করতে হবে।
 
উল্লেখ্য, মাত্র গত মাসে ব্যাংক অব ইংল্যান্ডের প্রধান অর্থনীতিবিদ অ্যান্ডি হ্যালডেন হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন যে ব্রিটেনে হাজার হাজার মানুষ রোবটের কারণে কাজ হারাবে। মিস্টার হ্যালডেন বলেছিলেন, যদি মানুষের জন্য নতুন কাজ তৈরি করতে হয়, কোম্পানিগুলোকে অনেক সৃষ্টিশীল হতে হবে। কিন্তু সেটি সম্ভব হবে কিনা তা নিয়ে সংশয় রয়েছে তার।-বিবিসি।
চাকরিপ্রার্থীদের জন্য গুগলের নতুন সার্চ ফিচার
                                  

বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার চাকরির সন্ধানদাতা ওয়েবসাইট, অনলাইন শ্রেণিবদ্ধ ও সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে তথ্য নিয়ে চাকরিপ্রার্থীদের জন্য নতুন ফিচার নিয়ে এলো সার্চ জায়ান্ট গুগল। 

বিভিন্ন ওয়েবে তালিকাবদ্ধ চাকরির তথ্যগুলো সমন্বিতভাবে সরাসরি পাওয়া যাবে গুগল সার্চ অপশনে। উন্মোচনের শুরুতেই বিক্রয় ডটকম, মুস্তাকবিল ডটকম এবং এক্সপ্রেসজবস ডট আইকেসহ হাজারো সাইটের চাকরির তথ্য সুশৃঙ্খলভাবে প্রদর্শন করবে গুগল। ‘পার্টটাইম জব’, ‘সফটওয়্যার ডেভেলপার জব’, ‘কনস্ট্রাকশন জবস’ কিংবা এ ধরনের যে-কোনো ক্যাটাগরির চাকরি খোঁজার ক্ষেত্রে অভিনব এক অভিজ্ঞতা উপভোগ করতে পারবেন চাকরিপ্রার্থীরা। তালিকাবদ্ধ যে-কোনো একটি চাকরির ওপর ক্লিক করলেই সংক্ষিপ্ত আকারে বিভিন্ন তথ্য, যেমনÑ জব টাইটেল, লোকেশন, ফুলটাইম/পার্টটাইম ও অন্যান্য আরও তথ্য দেখার পাশাপাশি ওই জব সম্পর্কিত জরুরি ওয়েবলিংক, মতামত, রেটিং, চাকরির প্রকৃত উৎস, এমনকি চাকরিপ্রার্থীর বাসা থেকে কর্মস্থলের যোগাযোগব্যবস্থা প্রদর্শন করবে গুগল। অতঃপর সেখান থেকে চাকরিপ্রার্থীকে নিয়ে যাবে চাকরিটির প্রকৃত ওয়েবলিংকে, যেখানে বিস্তারিতভাবে ওই চাকরির তথ্য দেওয়া আছে এবং যেখান থেকে চাকরিটির জন্য আবেদন করা যাবে।   
চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোকে একটি টেকসই ব্যবস্থার মধ্যে নিয়ে আসতে ‘ওপেন ডকুমেন্টেশন’ উন্মুক্ত করা হয়েছে, যা ছোট-বড় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নতুন চাকরির তথ্য প্রদর্শনযোগ্য হতে সহায়তা করবে। এক্ষেত্রে উন্মুক্ত স্ট্রাকচার স্কিমা ডট ওআরজি ওয়েব মার্কআপ স্ট্যান্ডার্ড ব্যবহার করা হয়েছে, যা গুগল সমর্থন করে। চাকরির তথ্য তালিকাভুক্ত করার মধ্য দিয়ে ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানগুলো গুগলে নিজেদের আরও মেলে ধরতে পারবে, ফলে চাকরিদাতা এবং চাকরিপ্রার্থী উভয় পক্ষ লাভবান হবে। নতুন সার্চ ফিচারটি ইংরেজি ভাষায় অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস প্ল্যাটফর্মে গুগল অ্যাপসহ ডেস্কটপ ও মোবাইলের গুগল সার্চ অপশনে ব্যবহার করা যাবে।


   Page 1 of 7
     তথ্য -প্রযুক্তি
রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন প্রচার করবে না গুগল
.............................................................................................
জেডটিই বাংলাদেশের আইসিটিসহ বিভিন্ন খাতের উন্নয়নে কাজ করতে চায়
.............................................................................................
মোবাইল বৈধ কিনা জানা যাবে এসএমএসে
.............................................................................................
জয়পুরহাটে বিজ্ঞান ও শিল্প প্রযুক্তি মেলা শুরু হবে ১৭ জানুয়ারি
.............................................................................................
পাঁচটি স্মার্টফোনের দাম কমছে
.............................................................................................
দেশে তৈরি প্রথম ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনের মোড়ক উন্মোচন
.............................................................................................
বাংলাদেশের হাই-টেক পার্কে বিনিয়োগে আগ্রহী চীন
.............................................................................................
হোয়াটসঅ্যাপে বদলাচ্ছে মেসেজ ডিলিটের নিয়ম, জেনে নিন
.............................................................................................
যে কারণে ফোনের চার্জ দ্রুত ফুরিয়ে যাচ্ছে
.............................................................................................
যেসব কারণে হ্যাক হয় ফেসবুকের পাসওয়ার্ড
.............................................................................................
সব রেকর্ড ভেঙে সৌর বিজয়ের কাছাকাছি নাসার মহাকাশযান
.............................................................................................
অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ডিলিট হওয়া ডেটা ফিরে পাবেন যেভাবে
.............................................................................................
ফেসবুক অ্যাকাউন্ট নিরাপদ রাখবেন যেভাবে
.............................................................................................
স্মার্টফোন ভাইরাস মুক্ত রাখবেন যেভাবে
.............................................................................................
রোবটের কারণে বিশ্বে কাজ হারাবে সাড়ে ৭ কোটি মানুষ
.............................................................................................
চাকরিপ্রার্থীদের জন্য গুগলের নতুন সার্চ ফিচার
.............................................................................................
বাংলাদেশে চাকরি খুঁজে দেবে গুগল
.............................................................................................
দুর্ঘটনায় অ্যাপলের চালকবিহীন গাড়ি
.............................................................................................
ফলোয়ার বেশি হলে পরিচয় নিশ্চিতে লাগবে অনুমোদন
.............................................................................................
লাভ-লোকসানের হিসাব চলছে
.............................................................................................
গুগল ম্যাপে নতুন ফিচার ‘স্ক্রলিং বার’
.............................................................................................
দুর্গম এলাকায়ও মিলবে ইন্টারনেট সেবা
.............................................................................................
তথ্য পাওয়া জনগণের মৌলিক অধিকার : রাষ্ট্রপতি
.............................................................................................
কক্ষপথে পৌঁছেছে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট
.............................................................................................
কঠিন পাসওয়ার্ড মনে রাখবেন যেভাবে
.............................................................................................
আপনার সিম ও হ্যান্ডসেট কি ফোরজি উপযোগী
.............................................................................................
ফোরজির লাইসেন্স পেলো ৪ অপারেটর
.............................................................................................
দিনের তাপমাত্রা হ্রাস পাবে
.............................................................................................
বিআরটিসির নতুন মোবাইল এ্যাপ ‘কত দূর’ চালু
.............................................................................................
আগামীকাল সকালে আকাশে রোদ হাসবে
.............................................................................................
সমুদ্র বন্দরসমূহকে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে
.............................................................................................
‘বিজয় ইতিহাস অ্যাপ’ চালু করল রবি
.............................................................................................
বিশ্ববাজারে প্রযুক্তি পণ্য ও সেবা রফতানিকারক দেশ হতে চায় বাংলাদেশ : জয়
.............................................................................................
ফোরজি হবে নতুন বছরের উপহার: তারানা হালিম
.............................................................................................
১শ বছরের মধ্যে ডুবে যাবে চট্টগ্রাম!
.............................................................................................
নোকিয়ার স্মার্টফোন
.............................................................................................
ডিসেম্বর থেকে উইন্ডোজ ১০ বিনামূল্যে আপডেট বন্ধ
.............................................................................................
স্মার্টফোন কেনার আগে যে জিনিসগুলো যাচাই করা উচিত
.............................................................................................
গুগল ফটোজে ব্যক্তিগত ছবি গোপন রাখার উপায়
.............................................................................................
গুগল সার্চের তালিকা মুছে ফেলার কৌশল
.............................................................................................
নভেম্বরে হতে পারে ঘূর্ণিঝড়
.............................................................................................
নারীদের জন্য বিনামূল্যে ২০ লাখ সিম
.............................................................................................
স্থল নিম্নচাপটি ক্রমান্বয়ে দুর্বল হয়ে যেতে পারে
.............................................................................................
সমুদ্র বন্দরসমূহের জন্য তিন নম্বর সতর্ক সংকেত
.............................................................................................
তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকবে
.............................................................................................
৯৯৯ নম্বরে ফোন করলেই মিলবে নাগরিক সেবা
.............................................................................................
বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ, ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত
.............................................................................................
২০ লাখ তরুণ-তরুণীকে আইসিটি’তে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে : পলক
.............................................................................................
৫ অক্টোবরে যশোরে শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে চাকরি মেলা বসছে
.............................................................................................
রোহিঙ্গা শিবিরে টেলিটকের বুথ, সিম বিক্রি বন্ধ
.............................................................................................

সম্পাদক ও প্রকাশক মো: আবদুল মালেক, যুগ্ন সম্পাদক: নজরুল ইসলাম ভূঁইয়া । সম্পাদক র্কতৃক ২৪৪ ( প্রথম তলা ) ৪ নং জাতীয় স্টেডিয়াম, কমলাপুর, ঢাকা -১২১৪ থেকে প্রকাশিত এবং স্যানমিক প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজেস, ৫২/২ টয়েনবি র্সাকুলার রোড, ঢাকা -১০০০ থেকে মুদ্রিত । ফোন:- ০২-৭২৭৩৪৯৩, মোবাইল: ০১৭৪১-৭৪৯৮২৪, E-mail: info@dailynoboalo.com, noboalo24@gmail.com Design Developed By : Dynamic Solution IT & Dynamic Scale BD