|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
শিরোনাম : * রিমালে ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ দ্রুত মেরামতের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর   * বৃহস্পতিবার রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে যাবেন প্রধানমন্ত্রী   * ‘বিএসআরএফ বার্তা’র মোড়ক উম্মোচন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রীর   * তেহরানে প্রেসিডেন্ট রাইসি’র জানাজায় অংশ নিতে হাজারো মানুষের ঢল   * মানুষকে আলোর পথ দেখাবেন -বৌদ্ধ নেতাদের প্রতি রাষ্ট্রপতির আহ্বান   * দক্ষ মানব সম্পদ তৈরিতে ইউসেফ বাংলাদেশ কাজ করে যাচ্ছে : স্পিকার   * এলডিসি থেকে উত্তরণের পরও বাংলাদেশি পণ্যের জন্য সুবিধা অব্যাহত রাখবে অস্ট্রেলিয়া   * ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির মৃত্যুতে বাংলাদেশে একদিনের রাষ্ট্রীয় শোক   * কৃষি খাতে ফলন বাড়াতে অস্ট্রেলিয়ার প্রযুক্তি সহায়তা চান প্রধানমন্ত্রী   * সালাম মুর্শেদীর গুলশানের বাড়ি সরকারের সম্পত্তি : হাইকোর্ট  

   আদালত -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
সালাম মুর্শেদীর গুলশানের বাড়ি সরকারের সম্পত্তি : হাইকোর্ট

বুধবার (১৩ মার্চ) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী ইবাদত হোসেনের হাইকোর্ট বেঞ্চ এমন মন্তব্য করেন।

হাইকোর্ট বলেন, দুদকসহ অন্যান্য সংস্থার তদন্ত রিপোর্টে এটা প্রমাণিত যে সালাম মুর্শেদীর গুলশানের বাড়ি সরকারের পরিত্যক্ত সম্পত্তি। এই সম্পত্তি কিভাবে সালাম মুর্শেদী পেলেন, কিভাবে তার কাছে হস্তান্তর হলো, এটা আমাদের দেখাতে হবে।

পরে আদালত সালাম মুর্শেদীর আইনজীবীর আবেদনের প্রেক্ষিতে বাড়ি নিয়ে রায় ঘোষণার জন্য আগামী ১৮ মার্চ দিন ধার্য করেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার অনীক আর হক ও ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। সালাম মুর্শেদীর পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট সাঈদ আহমেদ রাজা। দুদকের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সাইফুদ্দিন খালেদ।

এর আগে গতকাল খুলনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদীর দখলে থাকা গুলশানের বাড়ি নিয়ে রায় ঘোষণার দিন পিছিয়ে আজকের দিন ধার্য করেন হাইকোর্ট। গত ৩ মার্চ খুলনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদীর দখলে থাকা গুলশানের বাড়ি নিয়ে শুনানি শেষ হয়।

সালাম মুর্শেদীর গুলশানের বাড়ি সরকারের সম্পত্তি : হাইকোর্ট
                                  

বুধবার (১৩ মার্চ) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী ইবাদত হোসেনের হাইকোর্ট বেঞ্চ এমন মন্তব্য করেন।

হাইকোর্ট বলেন, দুদকসহ অন্যান্য সংস্থার তদন্ত রিপোর্টে এটা প্রমাণিত যে সালাম মুর্শেদীর গুলশানের বাড়ি সরকারের পরিত্যক্ত সম্পত্তি। এই সম্পত্তি কিভাবে সালাম মুর্শেদী পেলেন, কিভাবে তার কাছে হস্তান্তর হলো, এটা আমাদের দেখাতে হবে।

পরে আদালত সালাম মুর্শেদীর আইনজীবীর আবেদনের প্রেক্ষিতে বাড়ি নিয়ে রায় ঘোষণার জন্য আগামী ১৮ মার্চ দিন ধার্য করেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার অনীক আর হক ও ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। সালাম মুর্শেদীর পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট সাঈদ আহমেদ রাজা। দুদকের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সাইফুদ্দিন খালেদ।

এর আগে গতকাল খুলনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদীর দখলে থাকা গুলশানের বাড়ি নিয়ে রায় ঘোষণার দিন পিছিয়ে আজকের দিন ধার্য করেন হাইকোর্ট। গত ৩ মার্চ খুলনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদীর দখলে থাকা গুলশানের বাড়ি নিয়ে শুনানি শেষ হয়।

মানবতাবিরোধী অপরাধে ময়মনসিংহের ত্রিশালের ৬ জনের বিরুদ্ধে রায় সোমবার
                                  

মুক্তিযুদ্ধের সময় হত্যা, গণহত্যাসহ মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার ছয় আসামির বিষয়ে সোমবার রায় ঘোষণা করা হবে।
আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের বিচারিক প্যানেল আজ এই আদেশ দেন। ট্রাইব্যুনালের অন্য দুই সদস্য হলেন বিচারপতি আবু আহমেদ জমাদার ও বিচারপতি কেএম হাফিজুল আলম।
ছয় আসামি হলেন- মো. মোখলেসুর রহমান মুকুল, মো. সাইদুর রহমান রতন, শামসুল হক ফকির, নুরুল হক ফকির, মো. সুলতান মাহমুদ ফকির ও নাকিব হোসেন আদিল সরকার।
প্রশিকিউশনের পক্ষে শুনানি করেন প্রশিকিউটর সুলতান মাহমুদ সীমন ও তাপস কান্তি বল। আসামিপক্ষে ছিলেন আইনজীবী আব্দুস সোবহান তরফদার, এডভোকেট মিজানুল ইসলাম ও এডভোকেট গাজী এমএইচ তামিম।
রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন প্রসিকিউটর তাপস কান্তি বল।
এর আগে প্রশিকিউশন ও আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে মামলাটির রায় ঘোষণার জন্য যে কোনো দিন অপেক্ষমাণ (সিএভি) ঘোষণা করেছিলেন ট্রাইব্যুনাল। তারই ধারাবাহিকতায় আজ রায় ঘোষণার দিন ধার্য করে ট্রাইব্যুনাল।
তাপস কান্তি বল জানান, এ মামলায় মোট ৯ জন আসামি ছিলেন। তাদের মধ্যে গ্রেফতার হয়ে কারাগারে ছিলেন ২ জন। কারাগারে থাকা দুই জন ও পলাতক একজনসহ মোট তিনজন মারা গেছেন। আর বাকি ছয়জন আসামির সবাই পলাতক।
মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে আটক, অপহরণ, নির্যাতন, হত্যাসহ মানবতাবিরোধী অপরাধের ছয়টি অভিযোগে ২০১৮ সালের ১২ জুলাই দাখিল করার পর ওই বছরের ৫ ডিসেম্বর ফরমাল চার্জ আনুষ্ঠানিক অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে বিচার শুরু হয়।
এরপর ২০১৯ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তাসহ(আইও) প্রশিকিউশনের  মোট ১৯ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়। এরপর উভয়পক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ হয়।

হাইকোর্টের রায় সাংবাদিকরা তথ্যের উৎস প্রকাশে বাধ্য নয়
                                  
কোনো সংবাদের সোর্স (উৎস) প্রকাশ করতে সাংবাদিকরা বাধ্য থাকবে না’ বলে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট।
 
রাষ্ট্র বনাম দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় রোববার (২৩ অক্টোবর) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের দ্বৈত হাইকোর্ট বেঞ্চের পূর্ণাঙ্গ রায়ে এ পর্যবেক্ষণ দেওয়া হয়েছে।

৫১পৃষ্ঠার পূর্ণাঙ্গ রায়ের পর্যবেক্ষণে আদালত বলেছেন, ‘সার্বিক দিক বিবেচনায় আমাদের মতামত হলো, সংবাদমাধ্যম এবং সাংবাদিকরা সাংবিধানিকভাবে এবং আইনত দুর্নীতি ও দুর্নীতিকারীদের বিরুদ্ধে জনস্বার্থে সংবাদ পরিবেশন করতে পারবেন।’
 
আদালত আরও বলেন, ‘এই মামলার শুনানি পর্যালোচনা করে এটাই প্রতীয়মান যে, কোনো সাংবাদিক তার নিউজের তথ্যের সোর্স কারও কাছে প্রকাশ করতে বাধ্য নয়। সংবিধানের ৩৯ অনুচ্ছেদে মত প্রকাশের স্বাধীনতার কথা বলে দেওয়া আছে। গণমাধ্যম রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ, এটা গণতন্ত্রের অবিচ্ছেদ্য অংশ।’
 
সংবিধানের ৩৯ অনুচ্ছেদে মত প্রকাশের স্বাধীনতার কথা বলে দেওয়া আছে উল্লেখ করে রায়ের পর্যবেক্ষণে আরও বলা হয়, আধুনিক বিশ্বে জানার অধিকার সবারই আছে। গণমাধ্যমের কাজ হলো জনগণকে সজাগ করা। বর্তমান সময়ের প্রতিটি ক্ষেত্রে দুর্নীতি ছড়িয়ে পড়ছে। আর এই দুর্নীতির বিরুদ্ধে গণমাধ্যম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে।
 
তবে ‘হলুদ সাংবাদিকতা সমর্থনযোগ্য নয়’ মন্তব্য করে আদালত বলেন, ‘সমাজের প্রকৃত চিত্র তুলে ধরতে গণমাধ্যমের মনোযোগী হওয়া উচিত।
বরখাস্ত ডিআইজি প্রিজন বজলুর রশিদের ৫ বছর কারাদণ্ড
                                  

তিন কোটি ১৪ লাখ ৩৫ হাজার ৯০২ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় কারা অধিদফতরের সাময়িক বরখাস্ত উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি প্রিজনস) বজলুর রশীদকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া রাষ্ট্রের অনুকূলে তিন কোটি ১৪ লাখ ৩৫ হাজার ৯০২ টাকা বাজেয়াপ্ত ঘোষণা করা হয়।

 

রোববার (২৩ অক্টোবর) ঢাকা বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক ইকবাল হোসেন এ রায় ঘোষণা করেন। কারাদণ্ডের পাশাপাশি পাঁচ লাখ টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন আদালত। অনাদায়ে আরও ছয় মাস কারাভোগ করতে হবে।

দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, দুদক আইন ২৭ (১) ধারায় অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে এ কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এছাড়া রাষ্ট্রের অনুকূলে তিন কোটি ১৪ লাখ ৩৫ হাজার ৯০২ টাকা বাজেয়াপ্ত ঘোষণা করা হয়।

গত ২২ সেপ্টেম্বর রাষ্ট্র ও আসামি পক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার জন্য এ দিন ধার্য করেন আদালত।

২০১৯ সালের ২০ অক্টোবর সকাল ১০টায় সস্ত্রীক বজলুর রশীদকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকে দুদক। জিজ্ঞাসাবাদের পর ডিআইজিকে গ্রেফতার করা হয়। ওইদিনই দুদকের উপ-পরিচালক মো. সালাউদ্দিন বাদী হয়ে বজলুর রশীদের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

২০২০ সালের ২৬ আগস্ট মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপ-পরিচালক মো. নাসির উদ্দীন ঢাকার বিশেষ জজ আদালতে বজলুর রশীদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) জমা দেন।

২২ অক্টোবর ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক ইকবাল হোসেন তার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন।

চার্জশিটে বলা হয়েছে, বজলুর রশীদ রূপায়ন হাউজিং স্টেট থেকে ঢাকার সিদ্ধেশ্বরী রোডের ৫৫/১ (পুরাতন) ৫৬/৫৭ (নতুন) নির্মাণাধীন স্বপ্ননিলয় প্রকল্পের ২৯৮১ বর্গফুট আয়তনের অ্যাপার্টমেন্ট কেনেন।

তিনি অ্যাপার্টমেন্টের মূল্য বাবদ তিন কোটি আট লাখ টাকা পরিশোধ করেছেন। এ অ্যাপার্টমেন্ট কেনার জন্য পরিশোধিত অর্থের কোনো বৈধ উৎস দেখাতে পারেননি বজলুর রশীদ।

এমনকি তিনি অ্যাপার্টমেন্ট কেনার বিষয়ে কোনো তথ্য তার আয়কর নথিতে দেখাননি। পরিশোধিত তিন কোটি আট লাখ টাকা জ্ঞাত আয় উৎসের সঙ্গে অসঙ্গতিপূর্ণ। সব মিলিয়ে তার বিরুদ্ধে প্রায় সোয়া তিন কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ দুদক আইন ২৭ (১) ধারায় অভিযোগপত্র জমা দেয়া হয়।

 
ডা. জুবাইদা রহমান আইনের দৃষ্টিতে পলাতক: আপিল বিভাগ
                                  

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের স্ত্রী জোবাইদা রহমানকে পলাতক ঘোষণা করে রায় দিয়েছে আপিল বিভাগ। আপিল বিভাগ বলেছে, হাইকোর্ট পলাতক জোবাইদার মামলা শুনে সংবিধান লঙ্ঘন করেছে। বুধবার আপিল বিভাগ এই রায় দিয়েছে। ২০০৭ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলের অবৈধ সম্পদ অর্জনের দুটি মামলা নিয়ে এই আদেশ দেয় আপিল বিভাগ।

 দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বলেন, ‘জোবায়দা রহমানের একটা আবেদন আপিল বিভাগ খারিজ করে দিয়েছেন৷ এ সংক্রান্ত একটা রায় আজকে প্রকাশ হয়েছে।

‘আপিল বিভাগ তার রায়ে জোবাইদা রহমানকে আইনের দৃষ্টিতে পলাতক বলেছেন। আর পলাতক অবস্থায় তার আবেদন শোনা ঠিক হয়নি। পলাতক আসামি কোনো আদালতে হাজির না হয়ে আবেদন করতে পারবেন না।’

আত্মসমর্পণ না করে সরাসরি হাইকোর্টে আবেদন করতে তিনি পারেন না। এ ঘটনাকে নজিরবিহীন বলেও উল্লেখ করেছে আদালত।

তিনি বলেন, ‘সংবিধানের ২৭ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী আইনের দৃষ্টিতে সবাই সমান। অথচ দেখা গেছে, সেই সুবিধা তাকে দেয়া হয়েছে। কাজেই অ্যাপেক্স কোর্টের দায়িত্বই ছিল এটা।’

আদালতে আত্মসমর্পণ না করে কীভাবে হাইকোর্ট এ মামলা শুনলেন তা নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছে দেশের সর্বোচ্চ আদালত।

১৬ পৃষ্ঠার রায়ে বলা হয়েছে, হাইকোর্ট এ মামলাটি এখতিয়ার বহির্ভূতভাবে শুনেছিল।

শত বছরের নজির ভেঙে জোবাইদা রহমানের মামলাটি শুনেছে বলেও উল্লেখ করে আপিল বিভাগ বলেছে, এটা অবৈধ ও সংবিধান লংঘন।

হাইকোর্টের দেয়া আট সপ্তাহের জোবাইদা রহমানকে আত্মসমর্পণের আদেশ বাতিল করে রায় দেন প্রধান বিচারপতির আপিল বেঞ্চ।

২০০৮ সালে হাইকোর্ট জোবায়দা রহমানের আবেদন শুনে আদেশ দিয়েছিল।

ঘোষিত আয়ের বাইরে চার কোটি ৮১ লাখ ৫৩ হাজার ৫৬১ টাকার মালিক হওয়া ও সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে রাজধানীর কাফরুল থানায় ২০০৭ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর এ মামলা করা হয়।

মামলায় তারেক রহমান, তার স্ত্রী ডা. জোবাইদা রহমান ও শাশুড়ি ইকবাল মান্দ বানুকে আসামি করা হয়।

একই বছর তারেক রহমান ও তার স্ত্রী পৃথক রিট আবেদন করেন। রিটে জরুরি আইন ও এ মামলার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা। হাইকোর্ট রুল জারি করে স্থগিতাদেশ দেয়।

রুল জারির ১৫ বছর পর দুদকের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ১৯ এপ্রিল রিট মামলা হাইকোর্টের কার্য তালিকায় ওঠে। এরপর হাইকোর্ট রুল শুনানির জন্য ২০ এপ্রিল দিন ঠিক করেন। ওইদিন তারেক ও জোবাইদার পক্ষে সময় চেয়ে আবেদন করা হয়। পরে হাইকোর্ট শুনানির জন্য ২৯ মে দিন ঠিক করেন।

সম্রাটের বিরুদ্ধে থাকা সব মামলায় জামিন
                                  

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটের জামিন আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত। সম্রাটের বিরুদ্ধে আর কোনো মামলা না থাকায় মুক্তিতে বাধা নেই বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবী।

বুধবার ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৬-এর বিচারক আল আসাদ মো: আসিফুজ্জামান শুনানি শেষে তার জামিন মঞ্জুর করেন।

এদিন সম্রাটের আইনজীবী জামিনের আবেদন করেন। অন্যদিকে দুদকের আইনজীবী জামিনের বিরোধীতা করেন। আদালত উভয়পক্ষের শুনানি শেষে তিন শর্তে ১০ হাজার টাকা মুচলেকায় ৯ জুন পর্যন্ত সম্রাটের জামিন মঞ্জুর করেন।

শর্তসমূহ হলো- আদালতের অনুমতি ব্যতীত দেশ ত্যাগ করতে পারবে না সম্রাট, পার্সপোর্ট জমা দিতে হবে এবং স্বাস্থ্যগত পরীক্ষার প্রতিবেদন আগামী ধার্য তারিখে জমা দিতে হবে।

সম্রাটের আইনজীবী মাহবুবুল আলম দুলাল গণমাধ্যমকে জানান, সম্রাটের বিরুদ্ধে মোট চারটি মামলা দায়ের করা হয়। অস্ত্র, মাদক ও অর্থপাচারের মামলায় ইতোমধ্যে জামিন পেয়েছেন তিনি। কারাগারে ছিলেন দুদকের মামলায়। এ মামলায় জামিন মঞ্জুর হওয়ায় তার কারামুক্ত হতে আর কোনো বাধা থাকল না।

২০১৯ সালের ৬ অক্টোবর ভোরে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে সম্রাট ও তার সহযোগী এনামুল হক আরমানকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। পরে তাকে নিয়ে দুপুর দেড়টার দিকে তার কাকরাইলের কার্যালয়ে অভিযান চালানো হয়। এ সময় ভেতর থেকে বিপুল পরিমাণ বিদেশী মদ, পিস্তল ও বিরল প্রজাতির বন্যপ্রাণীর চামড়া উদ্ধার করা হয়।

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) করা মামলায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটের জামিন আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত। সম্রাটের বিরুদ্ধে আর কোনো মামলা না থাকায় মুক্তিতে বাধা নেই বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবী।

বুধবার ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৬-এর বিচারক আল আসাদ মো: আসিফুজ্জামান শুনানি শেষে তার জামিন মঞ্জুর করেন।

এদিন সম্রাটের আইনজীবী জামিনের আবেদন করেন। অন্যদিকে দুদকের আইনজীবী জামিনের বিরোধীতা করেন। আদালত উভয়পক্ষের শুনানি শেষে তিন শর্তে ১০ হাজার টাকা মুচলেকায় ৯ জুন পর্যন্ত সম্রাটের জামিন মঞ্জুর করেন।

শর্তসমূহ হলো- আদালতের অনুমতি ব্যতীত দেশ ত্যাগ করতে পারবে না সম্রাট, পার্সপোর্ট জমা দিতে হবে এবং স্বাস্থ্যগত পরীক্ষার প্রতিবেদন আগামী ধার্য তারিখে জমা দিতে হবে।

সম্রাটের আইনজীবী মাহবুবুল আলম দুলাল গণমাধ্যমকে জানান, সম্রাটের বিরুদ্ধে মোট চারটি মামলা দায়ের করা হয়। অস্ত্র, মাদক ও অর্থপাচারের মামলায় ইতোমধ্যে জামিন পেয়েছেন তিনি। কারাগারে ছিলেন দুদকের মামলায়। এ মামলায় জামিন মঞ্জুর হওয়ায় তার কারামুক্ত হতে আর কোনো বাধা থাকল না।

২০১৯ সালের ৬ অক্টোবর ভোরে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে সম্রাট ও তার সহযোগী এনামুল হক আরমানকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। পরে তাকে নিয়ে দুপুর দেড়টার দিকে তার কাকরাইলের কার্যালয়ে অভিযান চালানো হয়। এ সময় ভেতর থেকে বিপুল পরিমাণ বিদেশী মদ, পিস্তল ও বিরল প্রজাতির বন্যপ্রাণীর চামড়া উদ্ধার করা হয়।

অধ্যাপক তাহের হত্যা মামলার রায়ে স্বস্তি প্রকাশ তবে কার্যকর হলেই সন্তুষ্টি : পরিবার
                                  

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ভূ-তত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. এস তাহের হত্যা মামলায় সহযোগী অধ্যাপক ড. মিয়া মো. মহিউদ্দিন এবং বাসার কেয়ারটেকার জাহাঙ্গীরের মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ।

 একই সঙ্গে দুই আসামির যাবজ্জীবন দণ্ডও বহাল রেখেছেন আদালত। তারা হলেন- নাজমুল আলম ও নাজমুল আলমের সম্বন্ধী আব্দুস সালাম।

মঙ্গলবার (৫ এপ্রিল) প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের ৬ বিচারপতির বেঞ্চ এ রায় ঘোষণা করেন।

এর আগে গত ১৬ মার্চ উভয়পক্ষের (রাষ্ট্র ও আসামি) করা আপিলের ওপর শুনানি শেষে রায়ের জন্য আজ (৫ এপ্রিল) দিন রেখেছিলেন আপিল বিভাগ।

আদালতে ওই দিন রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিন ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ। তার সঙ্গে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল অবন্তী নুরুল। বাদীপক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথী। এছাড়া ছিলেন অধ্যাপক ড. এস তাহেরের মেয়ে আইনজীবী সাগুফতা। অন্যদিকে, আসামিপক্ষে ছিলেন সিনিয়র অ্যাডভোকেট এসএম শাহজাহান ও অ্যাডভোকেট মো. তাজুল ইসলাম।

২০০৬ সালের ১ ফেব্রুয়ারি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কোয়ার্টারের ম্যানহোল থেকে অধ্যাপক তাহেরের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় নিহতের ছেলে সানজিদ আলভি আহমেদ মতিহার থানায় অজ্ঞাতনামা কয়েকজনকে আসামি করে হত্যা মামলা করেন। সে মামলায় ২০০৮ সালের ২২ মে রাজশাহীর দ্রুত বিচার আদালত চারজনকে মৃত্যুদণ্ড এবং দুইজনকে খালাস দেন। পরে হাইকোর্ট দুই আসামির মৃত্যুদণ্ডাদেশ বহাল রেখে অন্য দুই আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন।হাইকোর্টের রায়ে মৃত্যুদণ্ড বহাল থাকা দুই আসামি ছিলেন- একই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মিয়া মোহাম্মদ মহিউদ্দিন ও নিহত ড. তাহেরের বাসার কেয়ারটেকার মো. জাহাঙ্গীর আলম।আর সাজা কমিয়ে হাইকোর্ট মো. জাহাঙ্গীর আলমের ভাই নাজমুল আলম ও নাজমুল আলমের সম্বন্ধী আব্দুস সালামকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন। হাইকোর্টের এ রায়ের বিরুদ্ধে আসামিরা আপিল করেন। অন্যদিকে, সাজা কমিয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়ায় দুজনের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করে রাষ্ট্রপক্ষ।অধ্যাপক তাহের হত্যা মামলায় খালাসপ্রাপ্ত দুই আসামি হলেন- রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রশিবিরের তৎকালীন সভাপতি মাহবুবুল আলম সালেহী ও আজিমুদ্দিন মুন্সী।২০০৭ সালের ১৭ মার্চ ছয়জনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দিয়েছিল পুলিশ। পরে নিয়মানুযায়ী ডেথ রেফারেন্স (মৃত্যুদণ্ড নিশ্চিতকরণ) হাইকোর্টে আসে। পাশাপাশি আসামিরা আপিল করেন।

পরীমনির বিরুদ্ধে চার্জ শুনানি ১৪ ডিসেম্বর
                                  

রাজধানীর বনানী থানায় দায়ের করা মাদক মামলায় চিত্রনায়িকা পরীমনির বিরুদ্ধে সিআইডির দেয়া চার্জশিট আমলে নিয়েছেন আদালত। গতকাল ঢাকার মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ এ আদেশ দেন। একইসঙ্গে আগামী ১৪ ডিসেম্বর চার্জ গঠন শুনানির দিন ধার্য করেন আদালত। শুনানি উপলক্ষে এদিন সকাল সোয়া ১০টায় ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতে পরীমনির আদালতে হাজির হন। সোয়া ১১টার দিকে শুনানি শেষে আদালত এই আদেশ দেন। এর আগে, গত ২৬ অক্টোবর চার্জশিট আমলে গ্রহণের দিন ধার্য ছিল। তবে সেদিন বিচারক ছুটিতে থাকায় শুনানি পিছিয়ে ১৫ নভেম্বর ধার্য করা হয়।  গত ১০ অক্টোবর ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সত্যব্রত শিকদারের আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন পরীমনি। ওইদিন পরীমনিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে সিআইডি পুলিশের দেওয়া চার্জশিট আদালতে উপস্থাপন করা হয়। আদালত চার্জশিটটি গ্রহণ করেন। পরবর্তীকালে বিচারের জন্য মামলাটি মহানগর দায়রা জজ আদালতে বদলির আদেশ দেন আদালত। গত ৪ আগস্ট বিকেলে বনানীর ১২ নম্বর সড়কে পরীমনির বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাব। এ সময় ওই বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মাদক জব্দ করা হয়। মাদকের মামলায় পরীমনির ৫ আগস্ট চার দিন এবং ১০ আগস্ট দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। গত ১৩ আগস্ট রিমান্ড শেষে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। এরপর আবারও ১৯ আগস্ট এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। রিমান্ড শেষে গত ২১ আগস্ট আবার তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। গত ৩১ আগস্ট ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ চার্জশিট দাখিল হওয়া পর্যন্ত তার জামিন মঞ্জুর করেন। পরদিন তিনি কারামুক্ত হন। গত ৪ অক্টোবর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক কাজী গোলাম মোস্তফা পরীমনিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতের সংশ্লিষ্ট থানার জিআর শাখায় চার্জশিট জমা দেন। চার্জশিটভুক্ত অপর দুই আসামি হলেন- পরীমনির সহযোগী আশরাফুল ইসলাম দিপু ও মো.কবীর।

কুয়েতে পাপুলের আরো ৩ বছরের কারাদণ্ড
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

মানবপাচার ও অর্থপাচারের দায়ে লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সাবেক এমপি শহীদ ইসলাম পাপুলকে আরো তিন বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন কুয়েতের আদালত। একই সঙ্গে তাকে ২০ লাখ কুয়েতি দিনার জরিমানা করা হয়েছে।

সোমবার (২৬ এপ্রিল) কুয়েতের আপিল আদালত পাপুলের বিরুদ্ধে এ রায় দেন। কুয়েতের দৈনিক আল কাবাস ও আল নাহার পত্রিকায় প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ খবর প্রকাশ করা হয়েছে।

কুয়েতের আদালতে পাপুলের বিরুদ্ধে দু’টি মামলা দায়ের করা হয়। এর আগে চলতি বছর ২৮ জানুয়ারি আদালতের বিচারক তাকে চার বছরের কারাদণ্ড ও ১৯ লাখ কুয়েতি দিনার জরিমানা করেন। আজ সোমবার অপর একটি মামলায় তার আরো তিন বছরের কারাদণ্ড ও ২০ লাখ দিনার জরিমানা করা হলো। এ নিয়ে পাপুলের মোট সাত বছরের কারাদণ্ড হলো।

মানব ও অর্থপাচারের অভিযোগে গত বছর ৬ জুন সাবেক এমপি শহীদ ইসলাম পাপুলকে গ্রেফতার করে কুয়েতের পুলিশ। তিনি তারপর থেকেই সে দেশের কারাগারে আটক রয়েছেন। প্রথম দফায় কারাদণ্ড হওয়ায় তার সংসদ সদস্য পদ বাতিল হয়।  

ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ: মজনুর রায় বৃহস্পতিবার
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থী ধর্ষণ মামলায় একমাত্র আসামি মজনুর বিরুদ্ধে রায় বৃহস্পতিবার ঘোষণা করা হবে।

ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭ এর বিচারক বেগম মোসাম্মৎ কামরুন্নাহারের আদালত এই রায় ঘোষণা করবেন।

রায়ে মামলার একমাত্র আসামি মজনুর সর্বোচ্চ সাজা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হবে বলে আশা করছে রাষ্ট্রপক্ষ।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা বলছেন, মজনুর বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণ করতে তারা সক্ষম হয়েছেন। এছাড়া, আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে ধর্ষণের অভিযোগ স্বীকার করেছেন অভিযুক্ত। তাই রায়ে তার সর্বোচ্চ শাস্তি যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হবে।

এদিকে, মজনুর আইনজীবী (সরকার থেকে নিয়োগপ্রাপ্ত) বলছেন, মজনুর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণ করতে রাষ্ট্রপক্ষ সক্ষম হয়নি। মামলায় তিনি খালাস পাবেন।

গত ১২ নভেম্বর রাষ্ট্রপক্ষ ও আসামিপক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শুনানি শেষে আদালত ১৯ নভেম্বর রায়ের জন্য দিন ধার্য করেন। এর আগে গত ২৬ আগস্ট এ মামলায় মজনুর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন ভার্চ্যুয়াল আদালত।

প্রসঙ্গত, গত ৫ জানুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হন। পরে ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ক্যান্টনমেন্ট থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। এরপর গত ৮ জানুয়ারি ক্যান্টনমেন্ট থানাধীন শেওড়া বাসস্ট্যান্ড থেকে র‌্যাব ধর্ষণের ঘটনায় মজনুকে গ্রেপ্তার করে। গত ৯ জানুয়ারি আদালত মজনুর সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। গত ১৬ জানুয়ারি মজনু দোষ স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দেন।

ওসি প্রদীপসহ ২৯ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

কক্সবাজারের দ্বীপ উপজেলা মহেশখালীর বহুল আলোচিত আবদুস সাত্তার হত্যার ঘটনায় মহেশখালীর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে ভুক্তভোগী আবদুস সাত্তারের স্ত্রী হামিদা আক্তার বাদী হয়ে মহেশখালী থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশসহ ২৯ জনের বিরুদ্ধে এ মামলা দাযের করেন।

মহেশখালীর সাবেক ওসি প্রদীপসহ পুলিশের পাঁচ সদস্যকেও আসামি করা হয়েছে। তারা হলেন এসআই হারুনুর রশীদ, এসআই ইমাম হোসেন, এএসআই মনিরুল ইসলাম, এএসআই শাহেদুল ইসলাম ও এএসআই আজিম উদ্দিন।

২৯ আসামির মধ্যে প্রধান আসামি হিসেবে রয়েছেন ফেরদৌস বাহিনীর প্রধান ফেরদৌস (৫৬)। তিনি একই এলাকার বাসিন্দা।

মামলার বাদী হামিদা আক্তার জানান, ২০১৭ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি সকাল ৭টার দিকে ফেরদৌস বাহিনীর সহায়তায় হোয়ানকের লম্বাশিয়া এলাকায় তার স্বামী আবদুস সাত্তারকে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় থানায় মামলা নেয়নি। অবশেষে উচ্চ আদালতের শরণাপন্ন হন তিনি। রিট পিটিশন নং-৭৭৯৩/১৭ মূলে ‘ট্রিট ফর এফায়ার‘ হিসেবে গণ্য করতে আদেশ দেন বিচারক।

আদালত সূত্র জানায়, হামিদা বেগমের করা রিটের শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট ২০১৭ সালের ৭ জুন আদেশ দেন। এতে বলা হয়, হামিদা বেগম এজাহার দাখিল করলে মহেশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে তা তাৎক্ষণিক গ্রহণ করতে হবে। এই আদেশ প্রত্যাহার চেয়ে পুলিশ মহাপরিদর্শকের (আইজিপি) পক্ষে হাইকোর্টে আবেদন করা হয়।

অন্যদিকে হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে স্বরাষ্ট্র সচিবের (জননিরাপত্তা বিভাগ) পক্ষে আপিল বিভাগে আবেদন করা হয়। এই আবেদনের শুনানি নিয়ে ২০১৮ সালের ১৩ মে আপিল বিভাগ আদেশ দেন। এতে রুল ইস্যু না করে এজাহার গ্রহণ করতে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশ বাতিল করা হয়। একইসঙ্গে ওই রিটটি মোশন (নতুন মামলা) হিসেবে নতুন করে শুনানি করতে বলা হয়।

এদিকে, ওই সময় হাইকোর্টের রিট পিটিশনকারী অ্যাডভোকেট রাশেদুল হক খোকন জানান, উচ্চ আদালত থানায় মামলাটি করার নির্দেশ দেন। কিন্তু পুলিশের আইজিপির পক্ষ থেকে আদেশের স্থগিতের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তা স্থগিত করেন উচ্চ আদালত।

তিন দিনের রিমান্ডে শারমিন জাহান
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

নিম্নমানের মাস্ক সরবরাহের মামলায় গ্রেফতার অপরাজিতা ইন্টারন্যাশনালের মালিক শারমিন জাহানের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। দুপুরে আদালতে হাজির করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী রেজিস্টার শারমিন জাহানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ড চায় পুলিশ। দুপক্ষের শুনানি শেষে মহানগর হাকিম শারমিনের তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। একটি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত থেকে আরেকটি প্রতিষ্ঠানের মালিক হয়ে শারমিন বেআইনী কাজ করেছেন বলে আদলতে বলেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী।

তবে শারমিনের আইনজীবী বলেন, মানবিক কারণেই আরেকটি প্রতিষ্ঠান খোলা হয়েছে। নিম্নমানের মাস্ক সরবরাহের দায়ে বৃহস্পতিবার শারমিন জাহানের বিরুদ্ধে মামলা করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। শুক্রবার রাতে শাহবাগ এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় শারমিনকে। এদিকে, রিজেন্ট হাসপাতালের এমডি মিজানুর রহমানকে আদালতে হাজির করে রিমান্ড চায় পুলিশ। আদালত মিজানের দশদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

সুপ্রিম কোর্টে প্রবেশে মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে সুপ্রিম কোর্টে আসা সবাইকে বাধ্যতামূলক মাস্ক ব্যবহারের ওপর নির্দেশনা জারি করেছে কোর্ট প্রশাসন। বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. আলী আকবর স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে সুপ্রিম কোর্টে কর্মরত সব কর্মকর্তা ও কোর্টে আগত আইনজীবী, আইনজীবীদের সহকারী ও বিচারপ্রার্থীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে বাধ্যতামূলকভাবে মাস্ক ব্যবহার করতে হবে।

এর আগে, গত ২১ জুলাই স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ মাস্ক ব্যবহার সংক্রান্ত নির্দেশনা দিয়ে একটি পরিপত্র জারি করে। পরিপত্রে প্রতিটি কর্মস্থলে কর্মরত ব্যক্তি ও জনসমাবেশ চলার সময় জায়গাগুলোতে আবশ্যিকভাবে মাস্ক পরিধানের নির্দেশনা দেয়া হয়।

চিকিৎসা না দিয়ে রোগী ফেরত অভিযোগ তদন্তে হাইকোর্টের নির্দেশ
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

চিকিৎসা না দিয়ে রোগী ফেরত পাঠানো হাসপাতালগুলোর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

স্বাস্থ্য সচিব ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে (ডিজি) অভিযোগগুলো তদন্ত করে আগামী ২১ জুলাইয়ের মধ্যে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।

সোমবার (৬ জুলাই) বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের হাইকোর্ট ভার্চুয়াল বেঞ্চ বেশকিছু নির্দেশনা দিয়ে এ আদেশ দেন।

নির্দেশনাগুলো হলো- চিকিৎসা না দিয়ে ফেরত পাঠানো হলে তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়েরের জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তর অনলাইনে অভিযোগ গ্রহণের পদ্ধতি চালু করতে হবে। বেসরকারি হাসপাতালে আইসিইউর অস্বাভাবিক মূল্য সংক্রান্ত অভিযোগ পেলে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)’ কে তদন্তে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

আগামী ১০ কার্যদিবসের মধ্যে অক্সিজেনের মূল্য নির্ধারণ করতে বলেছেন আদালত। এছাড়াও ক্যান্সারসহ জটিল রোগের আক্রান্ত রোগীদের কোভিড-১৯ থাকলে ৩৬ থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে টেস্ট করে চিকিৎসা অব্যাহত রাখার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী অনিক আর হক, এডভোকেট ইয়াদিয়া জামান, জামিউল হক ফয়সাল। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

এডভোকেট ইয়াদিয়া জামান আদালতের আদেশের বিষয় গণমাধ্যমকে জানান। পরবর্তী আদেশের জন্য আগামী ২১ জুলাই দিন ঠিক করে দিয়েছেন আদালত।

এর আগে গত ১৫ জুন হাইকোর্ট পৃথক রিটের ওপর শুনানি শেষে চিকিৎসা না দিয়ে সাধারণ রোগীদের ফেরত পাঠানোর ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেন। আদালত আদেশে অবহেলায় মৃত্যু, আইসিইউ বণ্টন, বেসরকারি হাসপাতাল অধিগ্রহণ, অক্সিজেন সরবরাহ ও ঢাকা সিটি করপোরেশন এলাকা লকডাউন নিয়ে মোট ১১ দফা নির্দেশনা ও অভিমত দেন।

হাইকোর্ট আদেশ বিষয়ে আনা আবেদনের প্রেক্ষিতে এসব নির্দেশনা ও অভিমতের মধ্যে আপিল বিভাগের চেম্বার কোর্ট গত ১৬ জুন ৭টি নির্দেশনা স্থগিত করেন।

ওয়াসার পানির দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্তে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

ঢাকা ওয়াসার পানির দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্তের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন হাইকোর্ট। ওয়াসার পানির পরবর্তী বিল থেকে আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে।

সোমবার (২২ জুন) হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের ভার্চুয়াল বেঞ্চ ওয়াসার পানির দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করে করা রিটের শুনানি নিয়ে এ আদেশ দেন। আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রিটকারী আইনজীবী মো. তানভীর আহমেদ।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মো. তানভীর আহমেদ। অন্যদিকে ওয়াসার পক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। তার সঙ্গে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার।

গত ১৫ জুন ওয়াসার পানির দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করেন আইনজীবী তানভীর আহমেদ। কারণ ছাড়াই পানির দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তার নির্দেশনা চাওয়া হয় রিটে।

হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের ভার্চুয়াল বেঞ্চে ই-মেইলের মাধ্যমে রিট আবেদনটি দাখিল করা হয়। এরপর ১৭ জুন এ-সংক্রান্ত রিটের প্রাথমিক শুনানি শুরু করে আদেশের জন্য ২২ জুন দিন ধার্য করেন। আজ সেটির শুনানি করে আদেশ দেন আদালত।

আইনজীবী তানভীর আহমেদ আরো জানান, ওয়াসার সেবার মান না বাড়িয়ে পানির বিল বাড়ানো হয়েছে। গত ১ এপ্রিল থেকে ঢাকা ওয়াসা আবাসিক গ্রাহকদের পানির বিল ২৫ শতাংশ বাড়িয়েছে। বাণিজ্যিক গ্রাহকের বিল বাড়ানো হয়েছে প্রায় ৮ শতাংশ। নতুন মূল্যহার অনুযায়ী প্রতি হাজার লিটার পানির মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৪ টাকা ৪৬ পয়সা, যা আগে ছিল ১১ টাকা ৫৭ পয়সা। বাণিজ্যিকে প্রতি হাজার লিটারে ৩৭ টাকা ৪ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ৪০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

ঢাকা লকডাউন হবে কিনা, সিদ্ধান্ত সরকারের : হাইকোর্ট
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে ঢাকা শহরকে লকডাউন করা হবে কিনা, তা সরকারের সিদ্ধান্ত। এ বিষয়ে আদালতের কিছু করার নেই বলে মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট।

আজ রোববার ঢাকা লকডাউন করার আদেশ চেয়ে করা রিটের শুনানিতে বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্টের ভার্চুয়াল বেঞ্চ এ মন্তব্য করেন। এ রিটের ওপর আদেশের জন্য আগামীকাল সোমবার (১৫ জুন) দিন ধার্য করেন আদালত।

রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন রিটকারী আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। গত বৃহস্পতিবার আইনজীবী মাহবুবুল ইসলামের পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট মনজিল মোরশেদ এ রিট করেন।

রিট আবেদনে, করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচতে পুরো ঢাকাকে লকডাউন করার ঘোষণা চাওয়া হয়। এ ছাড়া রিটে করোনা চিকিৎসার সুবিধার্থে পর্যাপ্ত হাই ফ্লো নেজাল অক্সিজেন ক্যানোলা সংগ্রহের নির্দেশনা চাওয়া হয়।

রিটে বিবাদী করা হয় মন্ত্রিপরিষদ সচিব, স্বাস্থ্য, অর্থ ও প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয়ের সচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দুই অতিরিক্ত সচিব (হাসপাতাল ও প্রশাসন), পুলিশ কমিশনার, র‌্যাবের মহাপরিচালক এবং ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়রকে।


   Page 1 of 27
     আদালত
সালাম মুর্শেদীর গুলশানের বাড়ি সরকারের সম্পত্তি : হাইকোর্ট
.............................................................................................
মানবতাবিরোধী অপরাধে ময়মনসিংহের ত্রিশালের ৬ জনের বিরুদ্ধে রায় সোমবার
.............................................................................................
হাইকোর্টের রায় সাংবাদিকরা তথ্যের উৎস প্রকাশে বাধ্য নয়
.............................................................................................
বরখাস্ত ডিআইজি প্রিজন বজলুর রশিদের ৫ বছর কারাদণ্ড
.............................................................................................
ডা. জুবাইদা রহমান আইনের দৃষ্টিতে পলাতক: আপিল বিভাগ
.............................................................................................
সম্রাটের বিরুদ্ধে থাকা সব মামলায় জামিন
.............................................................................................
অধ্যাপক তাহের হত্যা মামলার রায়ে স্বস্তি প্রকাশ তবে কার্যকর হলেই সন্তুষ্টি : পরিবার
.............................................................................................
পরীমনির বিরুদ্ধে চার্জ শুনানি ১৪ ডিসেম্বর
.............................................................................................
কুয়েতে পাপুলের আরো ৩ বছরের কারাদণ্ড
.............................................................................................
ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ: মজনুর রায় বৃহস্পতিবার
.............................................................................................
ওসি প্রদীপসহ ২৯ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা
.............................................................................................
তিন দিনের রিমান্ডে শারমিন জাহান
.............................................................................................
সুপ্রিম কোর্টে প্রবেশে মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক
.............................................................................................
চিকিৎসা না দিয়ে রোগী ফেরত অভিযোগ তদন্তে হাইকোর্টের নির্দেশ
.............................................................................................
ওয়াসার পানির দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্তে হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা
.............................................................................................
ঢাকা লকডাউন হবে কিনা, সিদ্ধান্ত সরকারের : হাইকোর্ট
.............................................................................................
ভার্চুয়াল আদালতে সহস্রাধিক আসামির জামিন
.............................................................................................
ভিডিও কনফারেন্সে নিম্ন আদালতে শুধুমাত্র জামিন শুনানির নির্দেশ
.............................................................................................
বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদের ফাঁসি কার্যকর
.............................................................................................
অস্ত্র মামলায় জি কে শামীমের জামিন প্রত্যাহার
.............................................................................................
হাইকোর্টে আবারো খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন
.............................................................................................
শাজাহান খানের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন ইলিয়াস কাঞ্চন
.............................................................................................
ফিটনেসবিহীন গাড়ি রাস্তায় চলতে পারবে না: হাইকোর্ট
.............................................................................................
৩৬তম বিসিএসের ৩৮ জনকে নিয়োগ দিতে হাইকোর্টের নির্দেশ
.............................................................................................
খালেদা জিয়ার জামিন বাড়ল এক বছর
.............................................................................................
এস কে সিনহাসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের আদেশ
.............................................................................................
মতিউর রহমানসহ ছয়জনকে গ্রেফতার ও হয়রানি না করার নির্দেশ
.............................................................................................
ঢাবি শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ : আদালতে মজনুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি
.............................................................................................
আবরার হত্যা মামলা আম‌লে নেওয়া হবে ২১ জানুয়া‌রি
.............................................................................................
পিলখানা হত্যা মামলায় ১৩৯ জনের মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখে হাইকোর্টের পূণাঙ্গ রায় প্রকাশ
.............................................................................................
ওয়ানটাইম প্লাস্টিক পণ্যের ব্যবহার নিষিদ্ধ
.............................................................................................
বিচার প্রক্রিয়ার বিশ্বাসযোগ্যতা রক্ষা করতে হবে : প্রধান বিচারপতি
.............................................................................................
বরগুনায় রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় আসামির বিরুদ্ধে চার্জ গঠন
.............................................................................................
দুর্নীতির মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন শুনানি আজ, নিরাপত্তা জোরদার
.............................................................................................
মিথিলা-ফাহমির ব্যক্তিগত ছবি সরানোর নির্দেশ
.............................................................................................
সব কিছুর সীমা থাকা উচিত: প্রধান বিচারপতি
.............................................................................................
খালেদার জামিন শুনানিতে হট্টগোল বিচারপতিদের এজলাস ত্যাগ
.............................................................................................
নুসরাত হত্যা: অধ্যক্ষ সিরাজসহ মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ৪ আসামির আপিল
.............................................................................................
সিসি ক্যামেরা বসিয়েও অনিয়ম দূর হচ্ছে না: প্রধান বিচারপতি
.............................................................................................
বিএনপির অজ্ঞাত ৫০০ নেতাকর্মীর নামে মামলা
.............................................................................................
তামিম চৌধুরীর নেতৃত্বে হলি আর্টিজানে হামলা: আদালতের পর্যবেক্ষণ
.............................................................................................
হলি আর্টিজানে হামলা মামলার রায় জঙ্গিবাদ প্রশমনে যুগান্তকারী : এটর্নি জেনারেল
.............................................................................................
মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামির মাথায় ‌আইএসের টুপি
.............................................................................................
হলি আর্টিজান হামলা মামলায় ৭ জঙ্গির মৃত্যুদণ্ড
.............................................................................................
১৫ দিনের মধ্যে ঢাকার আশপাশের সব ইটভাটা বন্ধের নির্দেশ
.............................................................................................
দুই মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন বাড়লো
.............................................................................................
মীর নাসিরের ১৩, ছেলের ৩ বছরের সাজা বহাল
.............................................................................................
হলি আর্টিজান মামলার রায় ২৭ নভেম্বর
.............................................................................................
আবরার হত্যার বিচার হবে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে
.............................................................................................
প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি: বিএনপি নেতার ৩ বছরের কারাদণ্ড
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

সম্পাদক ও প্রকাশক: মো: আবদুল মালেক, সুগ্ম সম্পাদক: মো: জাহাঙ্গীর আলম শাহ। সম্পাদক কর্তৃক ২৪৪ (২য় তলা), ৪নং জাতীয় স্টেডিয়াম, কমলাপুর, ঢাকা-১২১৪
থেকে প্রকাশিত এবং স্যানমিক প্রিন্টিং এন্ড প্যাকেজেস, ৫২/২, টয়েনবি সার্কুলার রোড, ঢাকা-১০০০ থেকে মুদ্রিত।
মোবাইল: ০১৮৪১৭৪৯৮২৪, ০১৮৪১৭৪৯৮২৫ ই-মেইল: ই-মেইল: noboalo24@gmail.com,
bmengineering77@gmail.com, ওয়েবসাইট www.dailynoboalo.com


   All Right Reserved By www.dailynoboalo.com Developed By: Dynamic Solution IT Dynamic Scale BD & BD My Shop    
Dynamic SOlution IT Dynamic POS | Super Shop | Dealer Ship | Show Room Software | Trading Software | Inventory Management Software Computer | Mobile | Electronics Item Software Accounts,HR & Payroll Software Hospital | Clinic Management Software Dynamic Scale BD Digital Truck Scale | Platform Scale | Weighing Bridge Scale Digital Load Cell Digital Indicator Digital Score Board Junction Box | Chequer Plate | Girder Digital Scale | Digital Floor Scale